পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ অপেক্ষা আর কয়েক ঘণ্টার।
পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ অপেক্ষা আর কয়েক ঘণ্টার।

পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ
সেবা ডেস্ক:পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ অপেক্ষা আর কয়েক ঘণ্টার। তার পরই বছরের প্রথম গ্রহণ প্রত্যক্ষ করবে বিশ্ব।

চাঁদ ও সূর্যের মাঝে পৃথিবী এসে পড়লে পৃথিবীর ছায়ায় ঢাকা পড়ে চাঁদ। এর ফলে কিছুক্ষণের জন্য পৃথিবী থেকে দেখা যায় না চাঁদমামাকে। ক্রমশ পৃথিবী ও চাঁদ ক্রমশ অবস্থান বদল করায় পৃথিবীর ছায়া থেকে ক্রমশ বেরিয়ে আসে চাঁদ। ফের স্পষ্ট ভাবে দেখা যায় আকাশে।

বুধবার সন্ধ্যায় ঘটবে এমনই ঘটনা। চাঁদকে ঢেকে ফেলবে পৃথিবীর ছায়া। বুধবার, ৩১ জানুয়ারি কলকাতায় সূর্যাস্ত হবে ৫.১৮ মিনিটে। তার কিছুক্ষণ আগে ৪.২১ মিনিটে শুরু হবে আংশিক গ্রহণ। শীতের বিকেলে এমনিতেই দিগন্তের কাছে চাঁদের ঔজ্জ্বল্য থাকে খুব
কম। তার ওপর গ্রস্ত চাঁদ ক্রমশ রক্তবর্ণ ধারণ করবে। গ্রহণের এই পর্যায়কে ইংরাজিতে বলা হয় ‘ব্লাড মুন’ বা রক্তচন্দ্র। মহাকাশবিজ্ঞানের ভাষায় আবার তাই ‘প্যানাম্ব্রাল ইক্লিপস’ বা উপচ্ছায়া গ্রহণ।

ফলে বুধবার চন্দ্রোদয়ের পর থেকেই ক্রমশ আঁধারে ঢাকতে থাকবে চাঁদ। সন্ধ্যা ৬.২১ মিনিটে কলকাতায় শুরু হবে পূর্ণগ্রাস গ্রহণ।
আরও ম্লান হতে থাকবে চাঁদের ঔজ্জ্বল্য। রাত ৬.৫৯ মিনিটে পৃথিবীর ছায়ায় সম্পূর্ণ ঢাকা পড়বে চাঁদ। রাত ৭.৩৭ মিনিট পর্যন্ত চাঁদ
ঢাকা থাকবে পৃথিবীর ছায়ায়। এর পর ধীরে ধীরে ফের রক্তবর্ণ ধারণ করবে চাঁদ। রাত ৮.৪১ মিনিটে পৃথিবীর ছায়া থেকে বেরিয়ে আসবে চাঁদ। রাত ৯.৩৮ মিনিটে শেষ হবে গ্রহণ

, ,