বাড়ছে ব্রহ্মপুত্রের পানি, হুমকিতে কয়েকটি গ্রাম

বাড়ছে ব্রহ্মপুত্রের পানি, হুমকিতে কয়েকটি গ্রাম
সেবা ডেস্ক: পাহাড়ি ঢলের কারণে বাড়তে শুরু করেছে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি। পানির সঙ্গে আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে নদীতীরের ভাঙন। বিলীন হওয়ার পথে কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার বন্দবেড় ইউনিয়নের পাকা বেড়িবাঁধ রাস্তা। এতে বেড়িবাঁধ এলাকার আশেপাশে বসবাসরত প্রায় ১০টি গ্রামের বাসিন্দারা রয়েছেন আতঙ্কে।

শুক্রবার (৫ জুলাই) সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, ব্রহ্মপুত্র নদের পূর্বপাড় বামতীরে অবস্থিত পাকা বেড়িবাঁধ রাস্তা ভেঙে ভেতরে পানি ঢুকে গেছে। এতে বন্দবেড় ইউনিয়নের বাগুয়ারচর, বাইটকামারী, খঞ্জনমারা, বাইশপাড়া, ঝুনকিরচর, জিগনিকান্দা, তিনতেলীচরসহ ১০টি গ্রাম তলিয়ে যেতে পারে। তাই বন্যাতঙ্ক বিরাজ করছে গ্রামগুলোতে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, নদের পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভাঙছে বেড়িবাঁধ রাস্তাটি। ভাঙনরোধে কার্যকর কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় প্রতিবছরই তলিয়ে যাচ্ছে ঘরবাড়ি, ফসলি জমি, হাট-বাজার, সরকারি ও বেসরকারি স্থাপনা। দীর্ঘদিন ধরে রৌমারী উপজেলার ব্রহ্মপুত্র নদের বামতীর পূর্বপাড়ের মানুষ ভাঙন রোধে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, এমপি, মন্ত্রীকে জানিয়েছেন। কিন্তু এরপরও এ বিষয়ে দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

রৌমারী নদীভাঙন প্রতিরোধ আন্দোলন বাস্তবায়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. আবু হানিফ মাস্টার বাংলানিউজকে বলেন, পাকা বেড়িবাঁধ ও বাগুয়ারচর, বাইটকামারী গ্রাম রক্ষায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর ডিও লেটারসহ পানি উন্নয়ন বোর্ড কুড়িগ্রাম এবং ঢাকায় সচিবালয়ে যোগাযোগ করা হয়। কিন্তু ভাঙনরোধে প্রয়োজন অনুযায়ী বরাদ্দ পাওয়া যায়নি। স্বল্প বরাদ্দে পানি উন্নয়ন বোর্ড জিও ব্যাগ দিয়ে তীর সংরক্ষণের চেষ্টা করলেও তা খুব একটা কাজে আসছে না।

রৌমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) দীপঙ্কর রায় বাংলানিউজকে বলেন, ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙনকবলিত পাকা বেড়িবাঁধ পরিদর্শন করেছি। পাকা বেড়িবাঁধ ভেঙে যাওয়ায় এর আশেপাশের এলাকার বাসিন্দারা ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) কুড়িগ্রামের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুল ইসলাম বলেন, ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙনে পাকা বেড়িবাঁধ ভেঙে গেছে। পাকা বেড়িবাঁধ ও বাগুয়ারচর, বাইটকামারী গ্রাম রক্ষায় আমরা ২ কিলোমিটার জিও ব্যাগ দিয়ে তীর সংরক্ষণের প্রস্তাব দিয়েছিলাম। পর্যাপ্ত বরাদ্দ না থাকায় ২৮০ মিটার সংস্কার করা হয়েছে।

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

,

0 comments

Comments Please