জামালপুর হাসপাতালে একই সাথে দুই শিশু মৃত্যু নিয়ে হট্রগোল

জামালপুর হাসপাতালে একই সাথে দুই শিশু মৃত্যু নিয়ে হট্রগোল
জামালপুর সংবাদদাতা : জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে একই সাথে দুই শিশুর মৃত্যু নিয়ে নার্সদের সাথে স্বজনা হট্রগোল করেছে। স্বজনদের দাবি চিকিৎসার অবহেলায়  দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। অবশ্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অবহেলার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেছেন, চিকিৎসার কোন ত্রুটি ছিল না। মস্তিস্কে রক্তক্ষরন-শ্বাস কষ্ট ও খিচুনী, ইনফেকশনে শিশু দ্বয়ের মৃত্যু হয়। ঘটনাটি ঘটেছে ১২ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাতে।

জানা গেছে, দেওয়ানগঞ্জ মো:শফিকুল ইসলামের মেয়ে মাফিয়া (৯দিন) ইসলামপুর উপজেলার সোবাহান মিয়ার মেয়ে বেবিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে হাসপাতালে ভর্তি করে। আশংকাজনক অবস্থায় শ্বাস-প্রশ্বাস স্বাভাবিক রাখতে শিশু দ্বয়কে অক্সিজেন দেয়া হয়। অক্সিজেন চলাবস্থায় দুই শিশুর অবস্থার অবনতি হয়। এ সময় আতংকিত স্বজনেরা স্যালাইন ও অক্সিজেন খুলে দিতে বলে।

এ নিয়ে  কর্তব্যরত নার্সদের সাথে স্বজনদের বাকবিতন্ডা হয়। খবর পেয়ে ডাক্তার এসে পরিবেশ নিয়ন্ত্রনে আনে। ততক্ষনে ওই শিশুদ্বয় মারা গেছে। স্বজনদের আহাজারিতে অন্য রোগীর স্বজনরা হতাশা আর ভয়ে অসুস্থ অন্যান্য শিশুদের অক্সিজেন খুলে ফেলার হিড়িক পড়ে। বিব্রতকর পরিস্থিতিতে কর্তব্যরত শিশু বিশেষজ্ঞ  ডাক্তার তাজুল ইসলাম স্বজনদের কাউন্সিলিং শেষে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।

সিনিয়র স্টাফ নার্স আম্বিয়া জানান, আজ সারা দিন রোগীর প্রচুর চাপ ছিল। শিশু ওয়ার্ডে স্বজনদের উপচেপড়া ভীড়ে চিকিৎসা দিতে হিম শিম খেতে হয়েছে। স্বজনদের অভিযোগ, চিকিৎসার অবহেলায় শিশু মারা গেছে। সঠিক সময়ে সঠিক চিকিৎসা দেয়া হয়নি।

হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার তাজুল ইসলাম জানান, এই রোগীদের অবস্থা আগে থেকেই ঝুঁকিমুক্ত ছিল না। প্রসবকালেই শিশুর মাথায় আঘাত পেয়ে রক্ত ক্ষরণ হচ্ছিল। এধরনের রোগীকে বাচাঁনো কঠিন হয়ে যায় । এই ধরণের মূর্মুষু অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। হাসপাতালের তথ্য মতে, শিশু ওয়ার্ডে ১১৪ জনের মধ্যে রাতেই ভর্তি হয় ৬২ জন।


 -সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

,

0 comments

Comments Please