“বাংলাদেশে ফাইভ জি’র কার্যক্রম চালু করতে প্রস্তুত সরকার”

“বাংলাদেশে ফাইভ জি’র কার্যক্রম চালু করতে প্রস্তুত সরকার”


সেবা ডেস্ক: বাংলাদেশ সরকারের ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, দেশের জনগণের বিদ্যমান প্রয়োজনীয় চাহিদা মেটাতে ডিজিটাল সংযোগের বেইসলাইন হিসেবে ফোরজি সম্প্রসারণের জন্য মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। আমাদের স্পেকট্রাম প্রস্তুত রয়েছে। টুজি, থ্রিজিসহ ফোরজি কিংবা ফাইভ জি যে ভার্সনই ব্যবহার করার প্রয়োজন হয় সরকার তা দিতে প্রস্তুত।
শনিবার রাজধানী ঢাকায় ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি বেগবান করতে টেলিযোগাযোগের ভূমিকা’ শীর্ষক ওয়েবিনার সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সভাটি যৌথভাবে আয়োজন করে সিটিও ফোরাম বাংলাদেশ ও মোবাইল অপারেটরদের সংগঠন অ্যামটব।

ফাইভ জি বিকাশের প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, আমরা ফাইভ জি চালু করার কার্যক্রম শুরু করেছি। কারণ ফাইভ জি’র ওপর নির্ভর করে শিল্পপ্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে।

তিনি আরো বলেন, টেলিকম হচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশের মহাসড়ক। এই খাত ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় অবকাঠামো নির্মাণের পাশাপাশি ডিজিটাল অর্থনীতিসহ সব ডিজিটাল রূপান্তরে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে বিরাট অবদান রাখছে। সামনের দিনে এই ডিজিটাল মহাসড়কই সব সমৃদ্ধির কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হবে।

মন্ত্রী বলেন, ভয়েস কল ও ডেটার প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি করোনাভাইরাসের সময় মানুষ উপলব্ধি করেছে। যে গ্রামের মানুষ এক সময় ইন্টারনেটের প্রয়োজনীয়তার কথা কল্পনাও করতো না সেই গ্রামের দ্বিতীয় শ্রেণির শিশুটিও এখন ইন্টারনেট ব্যবহার করতে চায়। সেই কারণে মোবাইল অপারেটরদের বলছি, জনগণের কাছে যাওয়া প্রয়োজন, প্রত্যন্ত গ্রামে ফোর জি পৌঁছে দেয়াও প্রয়োজন।

শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।