উল্লাপাড়া মন্দিরের জায়গা দখল করে ভবন নির্মাণের অভিযোগ

উল্লাপাড়া মন্দিরের জায়গা দখল করে ভবন নির্মাণের অভিযোগ


উল্লাপাড়া প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া পৌরসভার শ্যামলীপাড়া হালদার পাড়ার অর্ধশত বছরের পুরনো শ্রী শ্রী ভদ্রাকালী মন্দির ও দেবোত্তর সম্পত্তির জায়গা দখল করে ব্যক্তিগত ভবন নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। 

একই মহল্লার রাম চন্দ্র বর্মণ আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মঙ্গলবার বিকেলে মন্দিরের সঙ্গে বিরোধপূর্ণ জায়গায় ব্যক্তিগত ভবন নির্মাণের চেস্টা চালায়। মন্দির কমিটির সভাপতি মিলন কিশোর বর্মণের অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানা পুলিশ উক্ত নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেন। এ ঘটনায় সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের উভয় পক্ষের মধ্যে চাপা ক্ষোপ বিরাজ করছে।

মন্দির কমিটির সভাপতি মিলন কিশোর বর্মণের থানায় অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, উল্লাপাড়া পৌর শহরের শ্যামলীপাড়া হালদারপাড়ার ভদ্রাকালী মন্দিরের দেবোত্তর সম্পত্তি নিয়ে মন্দির কমিটির সঙ্গে একই মহল্লার বিবাদী রামচন্দ্র বর্মণ গংদের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। 

এ বিষয়ে সিরাজগঞ্জ বিজ্ঞ যুগ্ম দায়রা জজ ২য় আদালতে পৌরশহরের বাখুয়া মৌজার জেএল নং-১০১, আর. এস -৫২২৬ দাগে ২১ শতক ভুমি নিয়ে ১১৫/২০১৫ নং মোকদ্দমা চলমান রয়েছে। 

আদালত কতৃক নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে এই বিরোধপূর্ণ জায়গার উপর। পূর্ব হতেই উক্ত জায়গায় ঘর নির্মাণ করে মন্দির কমিটি ভাড়া দিয়ে ভোগ দখল করে আসছে। হঠাৎ করে বিবাদী রাম চন্দ্র গং এর লোকজন ঘরের ভাড়াটিয়া অনন্ত বর্মণকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে মন্দিরের নিয়ন্ত্রণে থাকা ছাপড়া ঘর ভেঙ্গে সেখানে ইট, বালু ,খোয়া এনে জোড়পূর্বক মন্দিরের জায়গা দখল করার চেষ্টা চালায়। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে চাপা উত্তেজনা শুরু হলে মন্দির কমিটির অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেন। 

অভিযুক্ত রাম চন্দ্র বর্মণ মুঠোফোনে জানান, মেরামতের ঘরটি মন্দিরের জায়গায় অবস্থিত। আমরা কতিপয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকজন মিলেমিশে দীর্ঘদিন ধরে মন্দিরের জায়গা ভোগদখল করে আসছি। নির্মাণাধীন ঘরটি আমার দখলে ছিল। কিন্তু বর্তমান মন্দির কমিটির সভাপতির সঙ্গে আমার ব্যক্তি ও পারিবারিক সম্পর্ক খারাপ হওয়ায় উক্ত দোকান সংস্কার করতে গেলে তারা বাঁধা প্রয়োগ করেন।  
এ ব্যাপারে উল্লাপাড়া মডেল থানা পুলিশের সহকারি উপ-পরিদর্শক মাহফুজ জানান, মন্দিরের জায়গা নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। আদালত কতৃক জায়গার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি থাকায় নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখা হয়েছে। 


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।