উল্লাপাড়ায় বিএডিসি’র গভীর নলকুপ পূনঃবাসন

উল্লাপাড়ায় বিএডিসি’র গভীর নলকুপ পূনঃবাসন


উল্লাপাড়া প্রতিনিধি: চলনবিল বাংলাদেশের শস্য ভান্ডার হিসেবে পরিচিত। বোরো মৌসুমে লক্ষ লক্ষ মেট্রিক টন ধান উৎপাদন করে এ অঞ্চলের কৃষক। উৎপাদিত ধান নিজেদের চাহিদা পুরণ করে অতিরিক্ত ফসল সারা দেশের মানুষের খাদ্য চাহিদা পুরণ র্কায় জাতীয় প্রবৃদ্ধি বাড়াতে সহায়তা করে থাকে এ অঞ্চলের কৃষি। 

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার বাঙ্গালা, বড়পাঙ্গাসী ও উধুনিয়া চলনবিল অধ্যাষিত এলাকা। উপজেলার বাঙ্গালা ইউনিয়নের বিনায়েকপুরের একই গ্রামে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের (বিএডিসি) ৫টি গভীর নলকুপ অচল হয়ে পড়ে আছে দীর্ঘদিন ধরে। এদিকে সেচের অভাবে বোরো মৌসুমে উচ্চ ফলনশীল ধান উৎপাদনে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে এ অঞ্চলের প্রান্তিক কৃষক। ফলে সরকারের বোরো মৌসুমের জাতীয় উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে কৃষি ও কৃষক। 

এলাকার কৃষকদের প্রাণের দাবি বোরো মৌসুম শুরুর আগেই বিএডিসি’র অচল হয়ে পড়ে থাকা উল্লেখিত গভীর নলকুপগুলো পুনঃবাসন করা হলে স্বপ্ল খরচে ফসল উৎপাদনে সক্ষম হবে চলনবিলের প্রান্তিক কৃষক। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট (বিএডিসি) কতৃপক্ষের সহযোগিতা চান এ অঞ্চলের সমবায়ীরা।

বিনায়েকপুর গ্রামের কৃষক আব্দুল জব্বার জানান, বোরো মৌসুমের সময় প্রখর রৌদ্রতাপে এ অঞ্চলের মাটি খরখরে হয়ে পড়ে। ফলে অগভীর নলকুপের (শ্যালো মেশিনের) সেচ সংকটে ব্যাহত হচ্ছে ফসল উৎপাদন। শ্যালো মেশিনে ফসলের বিনিময়ে ধান উৎপাদন করায় বড় ধরনের ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে কৃষক। 
কৃষক বাবলু মিয়া জানান, ইতিমধ্যে গ্রামে কৃষক সমবায় সমিতি গঠন করে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের (বিএডিসি) ৫টি গভীর নলকুপ পুনঃবাসন করার জন্য কতৃপক্ষ বরাবর আবেদন করা হয়েছে। অনুমোদন পেলে চলতি বছরেই কৃষক স্বপ্ল খরচে ফসল উৎপাদন করতে পারবে। 

উল্লাপাড়া বিএডিসি’র ক্ষুদ্রসেচের সহকারি প্রকৌশলী মোঃ আসাফুজ্জামান জানান, ওই অঞ্চলের সমবায় সমিতির (কৃষক) সদস্যদের আবেদনের প্রেক্ষিতে সরকার গভীর নলকুপ পুনঃবাসনের জন্য উদ্যোগ গ্রহন করেছে। সম্ভব হলে চলতি বছর থেকেই শুরু হতে পারে প্রকল্পের কার্যক্রম।

উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেওয়ান মওদুদ আহমেদ জানান, উন্নত ফসল ও উৎপাদন বৃদ্ধিতে কৃষকদের সব ধরনের সহযোগিতা দিতে প্রস্তত বর্তমান কৃষি বান্ধব সরকার। সেচ সংকট হলে সরকার পরিচালিত গভীর নলকুপ দ্বারা সেচ কার্যক্রম পরিচালনার উদ্যোগ নেওয়া হবে। উৎপাদন বৃদ্ধি পেলেই কৃষক অর্থনৈতিক মুক্তি পাবে এবং দেশের সক্ষমতা বাড়বে।  


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।