ইসলামপুরে নির্বাচনী সহিংসতায় বাড়িঘর ভাংচুর,অগ্নি সংযোগ ও লুটতরাজ

ইসলামপুরে নির্বাচনী সহিংসতায় বাড়িঘর ভাংচুর,অগ্নি সংযোগ ও লুটতরাজ



লিয়াকত হোসাইন লায়ন,জামালপুর প্রতিনিধি।। জামালপুরের ইসলামপুরে নির্বাচনী সহিংসতা কেন্দ্র স্থগিত, ভোটে হেরে যাওয়ার আশংকায় প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও সমর্থকদের বাড়িতে লুটতরাজ,অগ্নি সংযোগের ঘটনায় এলাকায় থম থমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। 

এসব ঘটনায় থানায় একাধিক মামলাও হয়েছে।

জানা যায়, ২৮নভেম্বর ইউপি নির্বাচনে চর পুটিমারী ইউনিয়নের আগ্রাখালী কেন্দ্রে  ইউপি সদস্য প্রার্থী ইউসুফ আলী (টিউবওয়েল) ও আসাদুল্লাহ ইসলাম আশা(মোরগ মার্কা) সমর্থকদের ভোট গ্রহণ সংক্রান্ত বাকবিতন্ডায় সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে।  

দুইপক্ষই ভোটকেন্দ্রে সশস্ত্র ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চালায়। ভাঙ্গচুর হয় ভোটকেন্দ্রের দরজা জানালা কেচিগেইট ও কেন্দ্রের আশ পাশের বাড়ি ঘর। 

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কেন্দ্র ইনচার্জ ফাঁকা গুলি ছোড়ে। পর ক্ষনেই পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হয়ে উঠে। 

হামলাকারীরা ভোট কেন্দ্রের দায়িত্বরত পুলিশ ও আনসার সদস্যদের উপর হামলা করে। 

এতে বেশ কয়েকজন আহত হন। এক পর্যায়ে ভোটকেন্দ্রে এক কক্ষে নির্বাচনী কর্মকর্তা কর্মচারী অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন। বন্ধ হয়ে যায় ভোট গ্রহণ। 

এমতাবস্থায় বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ স্থগিত থাকে। ৪টার পরে ভোট গনণা শুরু করলে আবারও দুই ইউপি সদস্য প্রার্থী ও তাদের কর্মী সমর্থকরা ভোটকেন্দ্রে দায়িত্ব নিয়োজিত সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের উপর সশস্ত্র হামলা চালায়। 

ছিনতাই হয়ে যায় ৮টি ভোট বাক্স। আবারও সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে ভোট কেন্দ্র এলাকায়। দফায় দফায় কেন্দ্র ও প্রতিদ্বন্দ্বী ও সমর্থকদের বাড়িতে লুটতরাজ হামলা ঘটনায় প্রায় ২০জন আহত হয়। 

কোন উপায় না পেয়ে আগ্রাখালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার আবুল মনছর মন্ডল ভোট কেন্দ্রটি স্থগিত করেন।

এলাকাবাসী জানায়, ইউপি সদস্য প্রার্থী ইউসুফ আলী ভোটে হেরে যাওয়ার আশংকায় ভোট কেন্দ্রে তার ভোটার সমর্থক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী ইউপি সদস্য প্রার্থী আসাদুল্লাহ ইসলাম আশার বাড়ি ও তার সমর্থকের বাড়িতে দফায় দফায় হামলা করে ঘর বাড়ি ভাংচুর, নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, গোয়ালের গরু লুটপাট করে।  

অন্যদিকে ওই দিন গাইবান্ধা ইউনিয়নের সতন্ত্র প্রার্থী রাজ্জাক সরদারে সমর্থকরা পুলিশের গাড়ী ব্যারিকেট দিয়ে ভাংচুর করাসহ  মহিষকুড়া গ্রামে সাবেক মেম্বার বাবুল ইসলামের বাড়িতে হামলা করে  এতে বাড়িঘর ভাংচুর ও লুট করে।

এছাড়াও নির্বাচনী সহিংসতায় পচাবহলা,পলবান্ধা ইউপির বাহাদুরপুর অগ্নি সংযোগ,গোয়ালের চর ইউনিয়নের সভারচর গ্রামে সাধারণ সদস্য সমর্থকদের মধ্য দাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় ঘটনা ঘটেছে। 

বিচ্ছিন্ন এসব ঘটনায় প্রায় ৪৫জন আহত হয়ে ইসলামপুর ও জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ব্যাপারে ইসলামপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সুমন মিয়া জানান- এসব ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। অভিযান চালিয়ে সাতজনকে আটক করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। 


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।