কাজিপুর সরকারি মনসুর আলী কলেজে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন

কাজিপুর সরকারি মনসুর আলী কলেজে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন



 : কাজিপুর সরকারি মনসুর আলী কলেজে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে উদযাপিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে সকালে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এরপর কলেজের অডিটোরিয়ামে  শিক্ষার্থীরা রচনা , চিত্রাঙ্কন, বঙ্গবন্ধুর ভাষণ ও কুইজ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। 


এরপর সাত মার্চের গুরুত্ব ও তাৎপর্য বিষয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ইতিহাস বিভাগের সহকারি অধ্যাপক আতাউর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ রেজাউল করিম। 

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর ভাষণের মধ্যেই স্বাধীনতার ঘোষণা লুকায়িত ছিলো। পাক হানাদারদের বোকা বানিয়ে কৌশলে তিনি বলেন, এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম। এই থেকেই তৎকালিন মুক্তিপাগল বীর বাঙালী তাদের করণীয় ঠিক করে নিয়েছিলো। এরপর দীর্ঘ নয় মাস তিনি জীবন মৃত্যুর মাঝখানে অনিশ্চিত জীবন নিয়ে জেলে কাটিয়েছেন। তার মতো মহান নেতা ছিলো বলেই দেশ আজ স্বাধীন।মূলত সাতই মার্চ বাঙালির মুক্তির বার্তা। তাই প্রতিটি শিক্ষার্থির উচিত বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করা। 

 অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রানীবিদ্যা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আব্দুর রহিম, হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মাহসুদুল হাসান মাজেদ, ইসলামী শিক্ষা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আব্দুর রহমান, শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক ও বাঙলা বিভাগের সহকারি অধ্যাপক জাহাঙ্গীর আলম, ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রভাষক মুশফিকুর রহমান প্রমূখ। 

আলোচনা অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ইংরেজি বিভাগের সহকারি অধ্যাপক ইতি রানী বিশ্বাস। 

পরে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। 

বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চারনেতা সহ সবশেষে সকল শহিদি আত্মার শান্তি কামনা করে বিশেষ মুনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।