[৭৭৯] উল্লাপাড়ায় ৮২ বছরের অবহেলিত বৃদ্ধা মা'র জায়গা হলো ছেলের ঘরে

S M Ashraful Azom
0

 : সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার পূর্ণিমাগাঁতী ইউনিয়নের পুকুরপাড় গ্রামে খোলা আকাশের নিচে অযত্ম অবহেলায়  ফেলে রাখা ৮২ বছরের বৃদ্ধা মা'কে ছেলের ঘরে তুলে দিলেন মডেল থানার ওসি নজরুল ইসলাম।

উল্লাপাড়ায় ৮২ বছরের অবহেলিত বৃদ্ধা মা'র জায়গা হলো ছেলের ঘরে



দুই মাস যাবৎ রোদ, ঝড়, বৃষ্টি উপেক্ষা করে লাইট, ফ্যান, বিদ্যুৎ ও শৌচাগার বিহীন কাপড়ে ঘেরা বেড়া ও ছাউনির নীচে গোয়াল ঘরের পাশে অন্যের খাবার খেয়ে কোন রকম বেঁচে রয়েছেন বৃদ্ধা জোবেদা। 

শুক্রবার মানবাধিকার লঙ্ঘিত খবরটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার হলে সন্ধ্যায় উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলামের নির্দেশে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বৃদ্ধা জোবেদা'কে উদ্ধার করে তার একমাত্র প্রবাসী ছেলে জলিল এর ঘরে তুলে দিয়ে আসেন এবং তাকে ভরণপোষণে কষ্ট দিলে আইনী ব্যবস্থা নিবেন বলে পুলিশ সাব জানিয়ে দেন জলিলকে। 

ঘটনাটি ঘটেছে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার পূর্ণিমাগাঁতী ইউনিয়নের পুকুরপাড় গ্রামে। অবহেলিত জোবেদা একই গ্রামের মরহুম সোনাউল্লাহ প্রামাণিকের স্ত্রী।  

 

এ ব্যাপারে গ্রামবাসীর একাধিক ব্যক্তি জানান, সোনাউল্লাহ মিয়ার ১ ছেলে ১ মেয়ে ছিল। 

মেয়েটির বিবাহের কিছু দিন পর সে মারা যায়। তার একমাত্র ছেলে আব্দুল জলিল দীর্ঘদিন ধরে মালয়েশিয়া থাকেন। জলিলের বাবা সোনাউল্লাহও মৃত্যুর আগে অযত্ন অবহেলায় ও বিনা চিকিৎসায় মারা যান দুই বছর আগে। 

তার মাতাও পুত্রবধুর নির্যাতনের স্বীকার হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করে আসছিলেন। মাঝে মধ্যে বৃদ্ধাকে শারীরিক ও মানষিক নির্যাতন করতো ছেলে ও তার বউ। 

এমন খবর পেয়ে মানবাধিকার ও গণমাধ্যম কর্মীরা ঘটনাস্থলে যায় এবং বিভিন্ন মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশ করে।  


উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলাম জানান, বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ ও মানবাধিকার কর্মীদের কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অসুস্থ জোবেদা কে উদ্ধার করে। পরে তার ছেলের ঘরে তুলে দিয়ে ভরণপোষণের দায়িত্ব দিয়ে আসেন। 


শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

ট্যাগস

Post a Comment

0Comments

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।

Post a Comment (0)

#buttons=(Ok, Go it!) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Know about Cookies
Ok, Go it!
To Top