বাহেরচর বাজারের অগ্নিকাণ্ডে ৩৪ দোকান ভস্মীভূত
বাহেরচর বাজারের অগ্নিকাণ্ডে ৩৪ দোকান ভস্মীভূত

বাহেরচর বাজারের অগ্নিকাণ্ডে ৩৪ দোকান ভস্মীভূত
সেবা ডেস্ক:  ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত বাহেরচর বাজারের আটটি মার্কেটের  ৩৪টি দোকান ভস্মীভূত হয়েছে। এতে প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ব্যবসায়ীদের।গতকাল সোমবার মধ্যরাতে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। আজ মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় এমপি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
প্রত্যক্ষদর্শী ও ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা জানান, রাত দেড়টার দিকে বাহেরচর বাজারের মুদি মনোহারী ব্যবসায়ী সবুজ প্যাদার দোকান থেকে আগুন লাগে। মুহূর্তের মধ্যে তা আশপাশের দোকানে ছড়িয়ে পড়ে। এ খবর মসজিদের মাইক দিয়ে জানানো হলে বিভিন্ন এলাকা থেকে ছুটে আসা লোকজন চার ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে সেচ পাম্পের মাধ্যমে পানি নিক্ষেপ করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।
ততক্ষণে আটটি মার্কেটের আব্বাস হাওলাদার, বশার হাওলাদার, বাদল মাতুব্বর, শাকিল আহম্মেদসহ ৩৪ জন ব্যবসায়ীর মুদি মনোহারী, শাড়ি-কাপড়, প্রসাধন সামগ্রী, ডিজেল-গ্যাস সিলেন্ডারের দোকান এবং গুদাম পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা। 
বাহেরচর বাজারের ক্ষতিগ্রস্ত মুদি মনোহারী  পাইকারি-খুচরা বিক্রেতা আব্বাস হাওলাদার বলেন, 'আমার দোকান এবং মালামাল পুড়ে প্রায় এক কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।' ক্ষতিগ্রস্ত মোবাইল সার্ভিসিংয়ের দোকানদার শাকিল আহম্মেদ বলেন, আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে না পারলে পুরো বাজার ছাই হয়ে যেত। ফায়ার সার্ভিস স্টেশন না থাকায় ব্যবসায়ীদের এ বড় ধরনের ক্ষতি হলো।' এদিকে আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পটুয়াখালী ৪ (কলাপাড়া-রাঙ্গাবালী) আসনের এমপি মাহবুবুর রহমান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান এনামুল ইসলাম লিটু, রাঙ্গাবালী থানার ওসি মিলন কৃষ্ণ মিত্র প্রমুখ।
এ সময় এমপি মাহবুবুর রহমান বলেন, বুধবার আগুনে ক্ষতিগ্রস্তদের সাত হাজার টাকা, তিন বান্ডেল ঢেউটিন ও ৩০ কেজি করে চাল বিতরণ করা হবে। 
রাঙ্গাবালী থানার ওসি মিলন কৃষ্ণ মিত্র বলেন, 'সবুজ প্যাদা নামের এক ব্যবসায়ীর দোকান থেকে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। তবে আগুনের সূত্রপাত সম্পর্কে সঠিক কিছু জানা যায়নি। এ ঘটনায় তদন্ত চলছে।'উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা তপন কুমার ঘোষ বলেন, অগ্নিকাণ্ডে আটটি মার্কেটের ৩৪টি দোকান ভস্মীভূত হয়। অগ্নিকাণ্ডে সাড়ে তিন কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মোহাম্মাদ আলিমউল্লাহ বলেন, 'ইতিমধ্যে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করা হয়েছে।