SebaBanner

হোম
শ্রীবরদীতে সংখ্যালঘু পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় গ্রেফতার-৭

Arrested for the terrorist attacks on minority families in Sreebardi

ফরিদ আহম্মেদ রুবেল, শ্রীবরদী  (শেরপুর) প্রতিনিধি: শ্রীবরদী পৌর শহরের উত্তর বাজার এলাকায় গত বৃহস্পতিবার বিকেলে জমি সংক্রান্ত্র বিরোধের জের ধরে সন্ত্রাসী হামলায় সংখ্যালঘু পরিবারের সদস্য কালাচান ঠাকুর, শ্রীবরদী উপজেলা আ’লীগের দপ্তর সম্পাদক মোঃ আলমগীর হোসেন ও চা বিক্রেতা শান্ত মিয়াকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করার ঘটনায় শ্রীবরদী থানা পুলিশ ৭ জনকে গ্রেফতার করেছে।

জানা যায়, আহত কালাচান ঠাকুরের পুত্র সুমন ঠাকুর গত বৃহস্পতিবার রাতেই এ সন্ত্রাসী হামলার মুল নায়ক উত্তর বাজার এলাকার আব্দুর রশিদ মিয়া ও তার সহোদর তাতিহাটি ইউনিয়নের সদস্য জাতীয় পার্টির নেতা রফিকুল ইসলাম ওরফে আন্ডা মেম্বার সহ ৯ জন এজাহার নামীয় ও অজ্ঞাত ১৫-২০জনকে আসামী করে একটি এজাহার দাখিল করলে শ্রীবরদী থানার ওসি রেজাউল হক রাতেই মামলাটি রেকর্ড করে তদন্ত কর্মকর্তা এস.আই আনোয়ার হোসেনকে দ্রুত আসামীদের গ্রেফতারের নির্দেশ প্রদান করেন। পরে বৃহস্পতিবার রাতে তাতিহাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুল্লাহ বিল্লালের উত্তর বাজারের বাসা থেকে ৭জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলো আব্দুর রশিদ মিয়া (৫০), রফিকুল ইসলাম ওরফে আন্ডা মেম্বার (৪৫), রমজান আলী ওরফে ভেডু মিয়া (৫৩), শাহিন মিয়া ওরফে মন্ডল (৩০), ছোটন মিয়া (২৪), রুবেল মিয়া (২২) ও আব্দুস সামাদ (৩০)।


মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস.আই আনোয়ার হোসেন গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সংখ্যালঘু পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় ইতিমধ্যেই এজাহার নামীয় ৭জনকে গ্রেফতার করে শুক্রবার আদালতে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি এ মামলার অভিযুক্ত আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে শ্রীবরদী প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সদস্য আলমগীর হোসেনের উপর অহেতুক ও অতর্কিত ভাবে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা প্রতিবাদ ও দোষী সন্ত্রাসীদের অবিলম্বে গ্রেফতার এবং দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন বিভিন্ন মহলের নেতৃবৃন্দরা।

এ ব্যাপারে ওসি রেজাউল হকের দৃষ্টি আকর্ষন করা হলে, তিনি বলেন, সন্ত্রাসীরা যতই প্রভাবশালী হোক না কেন তাদের শক্ত হাতে দমন করা হবে।

, , , ,

Home-About Us-Contact Us-Sitemap-Privacy Policy-Google Search