স্বাস্থ্যসেবায় ভারতের চেয়ে উন্নত বাংলাদেশ : ল্যানসেট জরিপ
স্বাস্থ্যসেবায় ভারতের চেয়ে উন্নত বাংলাদেশ : ল্যানসেট জরিপ

স্বাস্থ্যসেবায় ভারতের চেয়ে উন্নত বাংলাদেশ : ল্যানসেট জরিপ

সেবা ডেস্ক: গত বছরের তুলনায় স্বাস্থ্যসেবার মানের দিক দিয়ে ভারতের চেয়ে এখনও অনেক এগিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ। এ বছর স্বাস্থ্য রেটিংয়ে ছয় পয়েন্ট উন্নতি অর্জন করেছে বাংলাদেশ। ১৯৫ টি দেশের মধ্যে সূচকের হিসাবে স্বাস্থ্যসেবার মানের দিক দিয়ে বিশ্বের শীর্ষস্থানে রয়েছে আইসল্যান্ড। সবার নিচে রয়েছে সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিকান। বাংলাদেশের অবস্থান ১৩৩তম। বিশ্বের অন্যতম প্রাচীন মেডিকেল জার্নাল দ্য লানসেট এ গবেষণা জরিপ প্রকাশ করে।

তালিকায় সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যসেবা ও গুণগত মানে দ্বিতীয় নরওয়ে, তৃতীয় ন্যাদারল্যান্ড, চতুর্থ লুক্সেমবার্গ, পঞ্চম অস্ট্রেলিয়া, ষষ্ঠ অবস্থানে ফিনল্যান্ড, সপ্তম সুইজারল্যান্ড, অষ্টম সুইডেন, নবম ইতালি, দশম এনডোরা। পরে পর্যায়ক্রমে আয়ারল্যান্ড, জামাপান, অস্ট্রিয়া, কানাডা, বেলজিয়াম, নিউজিল্যান্ড, ডেনমার্ক, জার্মানি, স্পেন, ফ্রান্স। তালিকায় ২০তম তালিকায় রয়েছে সিঙ্গাপুর, চীনের অবস্থান ৪৮তম, শ্রীলংকা রয়েছে ৭১তম অবস্থানে। বাংলাদেশ ১৩৩তম ও ভুটান ১৩৪তম। তবে নেপাল (১৪৯তম), পাকিস্তান (১৫৪তম) ও আফগানিস্তানের (১৯১তম) চেয়ে ভাল অবস্থানে আছে ভারত। ১৯৯০ সাল থেকে ২০১৫ পর্যন্ত সময়ে দেশগুলোর চিকিৎসাসেবার মানের ওপর ভিত্তি করে এ প্রতিবেদন তৈরি করা হয়।

মানুষের পাঁচটি মৌলিক অধিকারের মধ্যে স্বাস্থ্য একটি। বাংলাদেশের স্বাস্থ্যসেবা প্রত্যাশিত মানদণ্ডের কাছাকাছি- এমন তথ্য জানিয়ে সরকারের পক্ষ থেকে ইতিপূর্বে বলা হয়েছিল, দেশের সাধারণ মানুষ বর্তমানে ডিজিটাল স্বাস্থ্যসেবার সুবিধা পাচ্ছে। দেশের সবপর্যায়ের হাসপাতালে বেডের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। স্থাপন করা হয়েছে আধুনিক যন্ত্রপাতি। শয্যা বাড়ানোর পাশাপাশি নতুন জেনারেল হাসপাতাল ও বিশেষায়িত হাসপাতালও নির্মাণ করছে সরকার। এ ছাড়া নতুন মেডিকেল কলেজ, ডেন্টাল কলেজ, হেলথ টেকনোলজি ইনস্টিটিউট, নার্সিং কলেজ এবং নার্সিং ট্রেনিং ইনস্টিটিউট স্থাপন এবং ডাক্তার, নার্সসহ স্বাস্থ্য খাতের প্রতিটি বিভাগেই জনবল বাড়ানো হয়েছে। নারী ও শিশুস্বাস্থ্য উন্নয়নে বিশেষ গুরম্নত্ব দিয়ে নারী ও শিশুর স্বাস্থ্য এবং জীবনমান সহায়ক নানামুখী সেবা ও সহায়তা কর্মসূচি বাস্ত্মবায়িত হচ্ছে দেশে। ফলে এটা বলা দোষের নয়, স্বাস্থ্য খাত নিয়ে সরকারের দূরদর্শী সিদ্ধান্ত্ম এবং তার সফল বাস্ত্মবায়নের কারণেই দেশের স্বাস্থ্য পরিস্থিতির উত্তরণ ঘটেছে।

মানুষের স্বাস্থ্য এবং পরিবার কল্যাণের কথা মাথায় রেখে সরকার স্বাস্থ্য খাতকে গুরুত্ব দিয়ে বাজেটে উল্লেখযোগ্য অর্থ বরাদ্দ রাখে। আর তারই সুফল পাচ্ছে সাধারণ মানুষ। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, জনগণের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেওয়া শেখ হাসিনার সরকারের একটি বড় চ্যালেঞ্জ। সরকার স্বাস্থ্য বিভাগকে শক্তিশালী করতে জেলা ও উপজেলায় কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণসহ বিভিন্ন হাসপাতাল সম্প্রসারণের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

বাংলাদেশের অগ্রসরমান উন্নতির সাথে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে দেশের স্বাস্থ্যখাত। ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার চাপ থাকা সত্বেও দেশের মানুষের জন্য সার্বক্ষণিক ও তাৎক্ষণিক সেবা দানে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে আমাদের স্বাস্থ্যকর্মী ও চিকিৎসক দল।



,