গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কিছু কেন্দ্রে অসামঞ্জস্য ভোটের নেপথ্যে

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কিছু কেন্দ্রে অসামঞ্জস্য ভোটের নেপথ্যে

সেবা ডেস্ক: কোনো ধরনের সহিংসতা এবং নাশকতা ছাড়াই গত মাসের ২৬ জুন মঙ্গলবার সম্পন্ন হয়েছে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে সরকার দলীয় প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম ২ লাখের বেশি ব্যবধানে বিএনপি’র হাসান উদ্দিন সরকারকে হারিয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন আগামী ৫ বছরের জন্য। জয় পরাজয়ের হিসেব চুকিয়ে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন আয়োজনই বড় পাওয়া এই নির্বাচন থেকে। তবুও অনুষ্ঠেয় তিন সিটি নির্বাচন এবং একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গাজীপুর নির্বাচনকে নিয়ে চলছে চুলছেঁড়া বিশ্লেষণ।

গাজীপুর নির্বাচন সুষ্ঠ এবং নিরপেক্ষ হলেও এই নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে পক্ষপাতদুষ্ট কয়েকটি পত্রিকা এবং কিছু স্বার্থান্বেষী মহল। উল্লেখযোগ্য কোনো অভিযোগ করতে না পেরে তারা গাজীপুরের নির্বাচনে বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোটের অসামঞ্জস্যের চিত্র তুলে ধরে একটি সুন্দর ও সুষ্ঠ নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করে যাচ্ছে।

গাজীপুর নির্বাচন শেষে নির্বাচন কমিশন এবং বিভিন্ন পর্যবেক্ষক দল থেকে পাওয়া তথ্য পর্যালোচনা করে দেখা গেছে অধিকাংশ কেন্দ্রেই ভোটারদের উপস্থিতি লক্ষণীয় ছিল। অনেক কেন্দ্রেই ৮০ ভাগেরও বেশি ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে। বেশ কিছু কেন্দ্রে ৯০ ভাগেরও বেশি ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে। সর্বোচ্চ ৯৪ ভাগ ভোট পড়েছে নগরীর বসুর মক্তব মাদ্রাসা কেন্দ্রে।

তবে কিছু কিছু কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতির হার ছিল ৩০ থেকে ৪০ ভাগ। খোঁজ নিয়ে জানা যায় এসব কেন্দ্রের বেশিরভাগই ভাসমান ভোটার অর্থাৎ শ্রমিক ভোটার। উল্লেখ্য গাজীপুর দেশের অন্যতম শিল্পাঞ্চল হওয়ায় সেখানে গড়ে উঠেছে অসংখ্য শিল্প কল কারখানা। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা শ্রমিকরা অনেকদিন ধরে গাজীপুরে বসবাসের ফলে এখানেই তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে থাকেন।

এইবারের গাজীপুর নির্বাচনে কিছু কেন্দ্রে ভোট কম পড়ার পেছনে প্রধান কারণ ছিল ঈদের পর পর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়া। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা শ্রমিকরা ঈদের ছুটিতে গাজীপুর ছেড়ে নিজেদের এলাকায় ঈদ পালন করতে গিয়েছিল। অনেক কারখানাই ঈদ উপলক্ষে বন্ধ ছিল। ফলে শ্রমিকদের একটা বড় অংশ নির্বাচনের দিন গাজীপুরের বাইরে ছিল। ফলশ্রুতিতে যে কয়েকটি কেন্দ্রে শ্রমিক ভোটারদের পরিমাণ বেশি ছিল সে কেন্দ্র গুলোতে তুলনামূলক কম ভোট পড়েছে।

উল্লেখিত কারণে এসব কেন্দ্রে কিছুটা কম ভোট পড়াকে স্বাভাবিক হিসেবেই দেখছেন অনেকে। এই কয়েকটি কেন্দ্রে তুলনামূলক কম ভোট পড়া কোনভাবেই সুন্দর এবং শান্তিপূর্ণ নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে পারেনা বলে মত দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা।


,
themeforestthemeforest

ছবি কথা বলে