SebaBanner

হোম
বিএনপিকে সতর্কবার্তা দিল আইএসআই

বিএনপিকে সতর্কবার্তা দিল আইএসআই

সেবা ডেস্ক: সম্প্রতি ভারত ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সম্পর্কে পরিবর্তনের হাওয়া নিয়ে সরগরম হয়ে আছে বাংলাদেশের রাজনীতি। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র প্রতিষ্ঠার পর থেকেই বিভিন্ন ইস্যুতে ভারতের সাথে কিছুটা বৈরী সম্পর্ক বিরাজমান ছিল দলটির।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি বাংলাদেশের রাষ্ট্রক্ষমতায় থাকা অবস্থায় ভারতকে এড়িয়ে পাকিস্তান এবং চীনের সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তোলার দিকে মনোযোগী ছিলেন জিয়াউর রহমান। পরবর্তীতে বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি ক্ষমতায় থাকা অবস্থায়ও একই পথে হাঁটে দলটি।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ভারতকে এড়িয়ে চলার একটি অন্যতম প্রধান কারণ হিসেবে আওয়ামী লীগের সাথে ভারতের সুসম্পর্কে দায়ী করেন অনেকে।

তবে ইদানিং বাংলাদেশের রাজনীতির সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে ভারতের সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তোলার পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির পক্ষ থেকে।

এ লক্ষ্যে গত মাসে বিএনপির একটি প্রতিনিধিদল দিল্লি সফর করে । সেখানে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপিকে জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ করার পরামর্শ দেওয়া হয় বলে জানা যায়।

দিল্লির পরামর্শ অনুযায়ী বিএনপি জামায়াতকে বাদ দিয়ে আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণের নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিল বলেও জানা যায়।

এমতাবস্থায় একটি গোপন বার্তায় বিএনপিকে সতর্কবার্তা পাঠিয়েছে পাকিস্তানের শীর্ষ গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই। আইএসআই এর এই সতর্কবার্তাকে বিএনপির জন্য বড় ধাক্কা হিসেবে দেখছে দলের একাধিক সিনিয়র নেতা।

আইএসআই এর বার্তায় কি রয়েছে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির একাধিক সিনিয়র নেতা জানান এই বার্তা দলের জন্য এক রকম হুমকিস্বরূপ।

২০১৭ সালে লন্ডনে গিয়ে খালেদা আইএসআই এর সাথে বৈঠক করে যে সিদ্ধান্ত বা চুক্তি করেছিলেন তার অধিকাংশই বিএনপি লঙ্গন করেছে বলে অভিযোগ করেছে আইএসআই।

পাশাপাশি সম্প্রতি ভারতের সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তোলার জন্য বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির দৌড়ঝাঁপকে ভালো ভাবে নেয়নি আইএসআই।

ভারতের সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তোলার কার্যক্রম অব্যাহত রাখলে বিএনপির অনেক গোপন তথ্য ফাঁস করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে আইএসআই।

পাশাপাশি আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বিএনপির গ্রহণযোগ্যতা এবং বিভিন্ন দেশ থেকে বিএনপির প্রতি সমর্থন আদায়ের জন্য আইএসআই যে ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে তা বন্ধ করে দেওয়ারও হুমকি দিয়েছে আইএসআই।

এছাড়া বিএনপি জামায়াতকে বাদ দিয়ে আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণের যে নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেটাকেও ভালোভাবে নেয়নি আইএসআই। জামায়াতকে বাদ দিলে দেশের বাইরে থেকে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির রাজনীতির জন্য যে বড় অংকের আর্থিক অনুদান আসে তা বন্ধ হয়ে যাবে বলে সতর্ক করেছে পাকিস্তানের এই গোয়েন্দা সংস্থা।

আইএসআই এর এই গোপন সতর্কবার্তার পর বিএনপির সিনিয়র নেতাদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পলিক্ষিত হয়েছে। রিজভীর নেতৃত্বে দলটির এক পক্ষ আইএসআই এর সতর্কতামূলক দিক নির্দেশনা মেনে নিতে বললেও ফখরুলের নেতৃত্বে আরেকটি পক্ষ বাংলাদেশের রাজনীতিতে ভারতের গুরুত্বের কথা বিবেচনায় নিয়ে ভারতের সাথে সম্পর্ক জোড়দার করার প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখার পক্ষে মত দিয়েছে।




,

Home-About Us-Contact Us-Sitemap-Privacy Policy-Google Search