উপকূলীয় জেলেদের মুখে ‍ফুটেছে রূপালি হাসি

উপকূলীয় জেলেদের মুখে ‍ফুটেছে রূপালি হাসি
সেবা ডেস্ক: বঙ্গোপসাগর ও গভীর সমুদ্রে মৎস শিকারী জেলেদের জালে ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে রূপালি ইলিশ। এতে হাসি ফুটেছে উপকূলীয় জেলেদের মুখে।

সাগর থেকে ইলিশ বোঝাই প্রতিটি ট্রলার আসছে দেশের বৃহত্তম মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র বরগুনার পাথরঘাটায়। ফলে ব্যস্ত সময় পার করছেন জেলে, আড়তদার ও ব্যবসায়ীরা । এখানে দেখা যায় কেউ ইলিশের ঝুড়ি টানছেন, কেউ বিক্রি করা মাছ প্যাকেট করছেন আবার কেউ কেউ সেই প্যাকেট দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠাতে তুলছেন ট্রাকে। সব মিলিয়ে যেন আনন্দের জোয়ার বইছে অবতরণ কেন্দ্রটিতে।

এখানে গ্রেড অনুযায়ী মণপ্রতি ফিশিং প্রথম গ্রেড ২০ থেকে ২২ হাজার, দ্বিতীয় গ্রেড ১৪ থেকে ১৬ হাজার, এলসি প্রথম গ্রেড ৩০ থেকে ৩৫ হাজার ও দ্বিতীয় গ্রেড ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা দরে কেনাবেচা চলছে। এছাড়া এক কেজির বড় সাইজ ৩৮ হাজার থেকে ৪৫ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।

আড়তদার হাফিজুর রহমান বলেন, জেলেদের জালে পর্যাপ্ত ইলিশ ধরা পড়ছে। সাগর থেকে যেসব ট্রলার ঘাটে আসছে তারা প্রত্যেকেই কম বেশি মাছ পেয়েছে। সামনের দিনগুলোতে আরো বেশি ইলিশ ধরা পড়বে এমনটা আশা করছি। ইলিশের দামও আগের থেকে কম।

পাথরঘাটা (বিএফডিসি) মৎস্য আড়তদার সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর জোমাদ্দার বলেন, এ সময়টা ইলিশের ভরা মৌসুম হলেও নদীতে তেমন ইলিশ ধরা পড়ছে না। গভীর সমুদ্রে ইলিশ ধরা পড়ছে। সাগরে ইলিশ শিকার অব্যাহত থাকলে আগামী কিছুদিন পাথরঘাটা অবতরণ কেন্দ্রে ইলিশের আমদানি এ রকমই থাকবে।

উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. মাহ্ফুজুল হাসনাইন জানান, মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞায় সরকারি আইন বাস্তবায়নে মৎস্য বিভাগের পাশাপাশি প্রশাসনের ব্যাপক ভূমিকা ছিল। এখন গভীর সমুদ্রে ইলিশ ধরা পড়েছে। প্রচুর বৃষ্টি হলে আরো বেশি ইলিশ ধরা পড়বে বলে জানান তিনি।

 -সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

,

0 comments

Comments Please