দেওয়ানগঞ্জে শিশু ধর্ষণকারী মক্তব শিক্ষককে গ্রেপ্তারের দাবি

দেওয়ানগঞ্জে শিশু ধর্ষণকারী মক্তব শিক্ষককে গ্রেপ্তারের দাবি
সেবা ডেস্ক: জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় বাহাদুরাবাদ ইউনিয়নের মসজিদের মক্তবে শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণকারী ওই মক্তবের শিক্ষক মো. মনিরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার এবং তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে ১০ অক্টোবর সকালে দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার সামনে  মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বেইস ও আমরাই পারি উপজেলা জোট এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

গণচেতনার সমন্বয়কারী ফাতেমা নার্গিসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বেইস সংস্থার কর্মকর্তা দিলরুবা আক্তার, দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবু সায়েম, দেওয়ানগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মদন মোহন ঘোষ, ভোরের কাগজ প্রতিনিধি বিল্লাল হোসেন মন্ডল, জনকল্যাণ ফেডারেশনের কর্মকর্তা লাইলী আক্তার, উন্নয়ন সংঘের কর্মকর্তা এস এম শামছুদ্দিন ও শরীফ উদ্দিন, ড্যাফ বাংলাদেশের কর্মকর্তা শামীম আলী, সূর্য্যের হাসি ক্লিনিক ব্যবস্থাপক আবুল হোসেন প্রমুখ। মানববন্ধনে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরাও অংশ নেন।

জানা গেছে, গত ৫ অক্টোবর দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার বাহাদুরাবাদ ইউনিয়নের ভাঙ্গারগ্রাম জামে মসজিদে ইসলামিক ফাউন্ডেশন জামালপুর পরিচালিত প্রাক-প্রাথমিক ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের প্রাক প্রাথমিক শ্রেণির ছয় বছর বয়সী মেয়েশিক্ষার্থী মসজিদের ভেতরে ধর্ষণের শিকার হয়। তাকে ধর্ষণকারী ওই মক্তবের শিক্ষক মনিরুল ইসলাম ওরফে মনি হুজুর ঘটনার পর থেকেই গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে গেছেন।

শিশু ধর্ষণকারী ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। কিন্তু ঘটনার ছয়দিন পার হলেও পুলিশ ধর্ষক ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। এ নিয়ে ধর্ষণের শিকার শিশুটির পরিবার ও এলাকাবাসীর মাঝে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে।

 -সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

,

0 comments

Comments Please