সরিষাবাড়ীতে ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা

সরিষাবাড়ীতে ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা
সেবা ডেস্ক: জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার মহাদান ইউনিয়নে সেঙ্গুয়া পূর্বপাড়া গ্রামে স্বামী ও  দাদার  উপর অভিমান করে সুমনা বেগম (২০) নামের এক গৃহবধূ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করেছেন। ৭ অক্টোবর বিকেলে  এ ঘটনা ঘটে।নিহত সুমনা সেঙ্গুয়া গ্রামের সোহেল মিয়ার মেয়ে।

পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সরিষাবাড়ী উপজেলার মহাদান ইউনিয়নের মাজালিয়া গ্রামের মোবারক হোসেনের ছেলে আরিফুল ইসলাম মামুন (২৩) বিয়ের পর থেকেই তার শ্বশুর বাড়িতে বসবাস করে আসছেন। তাদের সংসারে এক সন্তান রয়েছে। ৭ অক্টোবর বিকেল চারটার দিকে মামুনের স্ত্রী সুমনা বেগম তার স্বামীর সাথে অন্য মেয়ের সর্ম্পক আছে এই কথা বলায় দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। মামুন এতে রাগান্বিত হয়ে সুমনাকে কিলঘুষি দেয়। এ ঘটনায় সুমনার দাদা স্বামীর পক্ষ নিয়ে  সুমনাকেও মারধর করে। এর কিছুক্ষণ পরে স্বামী ও দাদার  উপর অভিমান করে ঘরের দরজা আটকিয়ে ধর্ণার সাথে উড়না পেঁচিয়ে  গলায় ফাঁস  দিয় আত্মহত্যা করেন সুমনা।

পরে পরিবারের লোকজন সুমনাকে দেখতে না পেরে ঘরের দরজা ভেঙে তাকে উদ্ধার করে সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।  খবর পেয়ে সরিষাবাড়ী থানা পুলিশ  সুমনার মরহেদ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. সাকলাইন জানান, ময়নাতদন্তের জন্য নিহত গৃহবধূ সুমনার মরদেহ জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হবে।

 -সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

,

0 comments

Comments Please