রোহিঙ্গা ফেরাতে বাংলাদেশের প্রস্তাব জাতিসংঘে পাস

রোহিঙ্গা ফেরাতে বাংলাদেশের প্রস্তাব জাতিসংঘে পাস

সেবা ডেস্ক: রোহিঙ্গাদের দেশে ফিরে যেতে উৎসাহিত করার জন্য মিয়ানমারকে আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদে একটি প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে। সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে জেনেভায় বাংলাদেশের স্থায়ী মিশন। পরিষদের চলতি অধিবেশনে 'মিয়ানমারের মানবাধিকার পরিস্থিতি' শীর্ষক ওই প্রস্তাবে রোহিঙ্গাদের পূর্ণ নিরাপত্তা ও সম্মানের সঙ্গে নিজেদের আবাসস্থলে ফেরার জন্য উৎসাহিত করতে মিয়ানমারকে আহ্বান জানানো হয়েছে। প্রস্তাবে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ায় বাংলাদেশের প্রশংসা করা হয়। পাশাপাশি তাদের প্রত্যাবাসন সম্পন্ন হওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশের সঙ্গে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে মানবিক সহায়তা প্রদান অব্যাহত রাখতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আহ্বানও জানানো হয়েছে। অধিবেশনে ৪৭ সদস্য দেশের মধ্যে ৩৭টি দেশই প্রস্তাবে সমর্থন দেয়। দুটি দেশ বিপক্ষে মত দেয় এবং ভোট দেয়নি আট দেশ। প্রস্তাবে জাতীয়, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক ফৌজদারি বিচার ব্যবস্থার আওতায় তদন্ত অব্যাহত ও জোরদার করার প্রতি গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে চলমান বিচার প্রক্রিয়া ও গাম্বিয়ার অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আন্তর্জাতিক বিচারালয়ের চলমান কার্যক্রমকে প্রস্তাবে স্বাগত জানানো হয়। অধিবেশনে জেনেভায় বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি শামীম আহসান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানবিক বিবেচনায় নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের সাময়িক আশ্রয় দিয়েছেন। তবে নিজ জন্মভূমিতে তাদের ফিরে যাওয়ার মধ্যেই এই আন্তর্জাতিক সমস্যার স্থায়ী ও গ্রহণযোগ্য সমাধান নিহিত। এ প্রস্তাব একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে। রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব প্রদান ও মিয়ানমারের গণতন্ত্র ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় এটি তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এবারের প্রস্তাবে জাতিসংঘের স্বাধীন তদন্ত প্রক্রিয়া, মহাসচিবের বিশেষ দূত এবং মানবাধিকারবিষয়ক সংস্থার স্পেশাল র?্যাপোর্টারসহ সংশ্নিষষ্টদের রাখাইনসহ মিয়ানমারের অন্যান্য অঞ্চলে নির্বিঘ্নে প্রবেশের অনুমতিসহ সার্বিক সহযোগিতা দিতে মিয়ানমারকে আহ্বান জানানো হয়। প্রস্তাবে স্পেশাল র‌্যাপোর্টারের কার্যকাল এক বছর বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে।

ভিডিও নিউজ


-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন


,

0 comments

Comments Please

আপনার মূল্যবান মতামতের জন্য সেবা হট নিউজ পরিবারের পক্ষ থেকে আপনাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

সেবা হট নিউজ : সত্য প্রকাশে আপোষহীন