কুড়িগ্রাম জেলা শাখার আয়োজনে বিভিন্ন দাবিতে পুর্ণদিবস কর্মবিরতি

কুড়িগ্রাম জেলা শাখার আয়োজনে বিভিন্ন দাবিতে পুর্ণদিবস কর্মবিরতি


ডাঃ জিএম ক্যাপ্টেন, কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি: বাংলাদেশ কালেক্টরেট সহকারী সমিতি (বাকাসস) কুড়িগ্রাম জেলা শাখার আয়োজনে পদবী পরিবর্তন ও বেতন বৈষম্য দুরীকরণের লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় কমিটি কর্তৃক ঘোষিত ২ দফা দাবিতে কুড়িগ্রামে পূর্ণদিবস কর্মবিরতি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয়ে কর্মরত ১৬-১১ গ্রেডের কর্মচারীদের পদ-পদবী পরিবর্তন ও বেতন গ্রেড উন্নীতকরণের দাবিতে বাংলাদেশ কালেক্টরেট সহকারী সমিতি ২০০১ সাল হতে বিভিন্ন সময়ে মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, সচিব জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা কর্মচারীদের দাবি দ্রæত বাস্তবায়নের জন্য সকল বিভাগীয় কমিশনার মহোদয় এবং সকল জেলা প্রশাসক মহোদয় সুপারিশপত্র প্রেরণ করেছেন। দাবি বাস্তবায়নের সুপারিশমালা প্রণয়নে গঠিত কমিটির সাথে বার বার সাক্ষাত এবং যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে স্মারকলিপি, আবেদন-নিবেদন করলেও বাকাসস কর্তৃক উত্থাপিত দাবি যৌক্তিক মর্মে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ একমত পোষণ করা সত্তে¡ও দীর্ঘদিনে দাবি বাস্তবায়িত হয়নি। পক্ষান্তরে একই প্রশাসনের অধীন তহশীলদার ও সহকারী তহশীলদারদের পদ-পদবী পরিবর্তন সহ বেতন গ্রেড উন্নীত করা হয়েছে। তাছাড়া ইতোমধ্যে প্রাথমিক শিক্ষক, সমাজ সেবা, পুলিশ বিভাগ, পরিসংখ্যান, অডিট, কৃষি, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরসহ প্রায় ২০/২১টি বিভাগ/ দপ্তর/ অধিদপ্তরের ১৬-১১ গ্রেডের কর্মচারীদের পদবী ও গ্রেড পরিবর্তন প্রজ্ঞাপন জারী হওয়ায় মাঠ প্রশাসনের কর্মরত ১৬-১১ গ্রেডের কর্মচারীদের পদবী পরিবর্তন অথবা সচিবালয়ের ন্যায় নিয়োগবিধি প্রণয়নের যৌক্তিক ও ন্যায়সঙ্গত দাবি দীর্ঘদিন বাস্তবায়িত না হওয়ায় কর্মচারীদের মধ্যে চরম হতাশা ও অসন্তোষ বিরাজ করছে। বাংলাদেশ কালেক্টরেট সহকারী সমিতি (বাকাসস) এর কেন্দ্রীয় কমিটির দাবি বাস্তবায়নের জন্য বিভিন্ন সময় নির্দেশনা প্রদানের পরও বাস্তবায়ন হয়নি। (১) মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়ে ১৯/০৬/২০১১ইং তারিখে পদবী পরিবর্তন সংক্রান্ত সার সংক্ষেপ অনুমোদন দিয়েছেন। কিন্তু তা বাস্তবায়ন হয়নি। (২) বাংলাদেশ কালেক্টরেট সহকারী সমিতির দাবির পরিপ্রেক্ষিতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় কর্তৃক গঠিত স্থায়ী কমিটি গত ০৩/০৭/২০১৩ইং তারিখে অনুষ্ঠিত সভার সুপারিশ করা হয়। কিন্তু তা বাস্তবায়িত হয়নি। (৩) গত ০৩/০৭/২০১৩ইং তারিখে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকগণের মুক্ত আলোচনাকালে গৃহীত সিদ্ধান্ত মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সানুগ্রহ নির্দেমনা ০২/০৯/২০১৩ইং তারিখের ৩৬৬ নম্বর স্মারকে জারী হলেও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় হতে বাস্তবায়ন হয়নি। (৪) মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সানুগ্রহ নির্দেশনা বাস্তবায়নের জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের পাক্ষিক গোপনীয় প্রতিবেদনে মাঠ প্রশাসনে কর্মরত ৩য় শ্রেণির কর্মচারীদের পদবী পরিবর্তনের দাবি যথাযথভাবে বিবেচনাক্রমে নিস্পত্তির জন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে ১৭/০৬/২০১৪ইং তারিখের ১৭৫ নম্বর স্মারকে পত্র প্রেরণ করা হলেও তা বাস্তবায়িত হয়নি। (৫) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহা-পরিচালক (প্রশাসন) এর সভাপতিত্বে এ্যাডমিনিস্ট্রিটিভ সার্ভিসের বিগত ০৪/১১/২০১৪ইং তারিখের সভার ০৬ নম্বর অনুচ্ছেদে সহকারীদের পদ মর্যাদা উন্নয়নের সুপারিশ করা হলেও তা বাস্তবায়িত হয়নি। (৬) মন্ত্রিপরিষদ সচিব মহোদয়ের সভাপতিত্বে গত ২৩/০৪/২০১৮ইং তারিখে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটির ২০১৮ এর ৭ম সভার ২২ নম্বর অনুচ্ছেদের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য ২৫/০৪/২০১৮ইং তারিখের ২২১ নম্বর স্মারকে নির্দেশনা প্রদান করা হলেও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় কর্তৃক বাস্তবায়িত হয়নি। (৭) মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন বাস্তবায়িত না হওয়ার কারণ জানানোর জন্য মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ হতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে ২৩/০২/২০২০ইং তারিখের ০৪.০০.০০০.৫১৩.১৭.১৮৮.০২.২০২০.১৩৩ নম্বর স্মারকে পত্র প্রেরিত হয়। কিন্তু এরপরও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন বাস্তবায়িত হয়নি।

সে কারণে বাংলাদেশ কালেক্টরেট সহকারী সমিতি (বাকাসস) কুড়িগ্রাম জেলা শাখার আয়োজনে পদবী পরিবর্তন ও বেতন বৈষম্য দুরীকরণের লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় কমিটি কর্তৃক ঘোষিত ২ দফা দাবিতে কুড়িগ্রামে পূর্ণদিবস কর্মবিরতি অনুষ্ঠিত হয়েছে। কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষিত দাবি বাস্তবায়নে কুড়িগ্রাম জেলা শাখার সভাপতি মোঃ এবিএম রিয়াজুল আলম রাফি, সাধারণ সম্পাদক মনিন্দ্রনাথ সরকার ও সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ বিপ্লব হাসান উপস্থিত থেকে কর্মসূচী বাস্তবায়নে কাজ করছেন। 

১৫ হতে আগামী ১৯ নভেম্বর সকাল ৯টায় হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত পূর্ণদিবস কর্মবিরতি এবং ব্যানার পোস্টার সহ অফিস চত্ত¡রে অবস্থান। আগামী ২২ হতে ২৬ নভেম্বর সকাল ৯টায় হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত পূর্ণদিবস কর্মবিরতি এবং ব্যানার পোস্টার সহ অফিস চত্ত¡রে অবস্থান। আগামী ২৯ হতে ৩০ নভেম্বর সকাল ৯টায় হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত পূর্ণদিবস কর্মবিরতি এবং ব্যানার পোস্টার সহ অফিস চত্ত¡রে অবস্থান এবং আগামী ৫ ডিসেম্বর দাবি বাস্তবায়িত না হলে ঢাকা প্রেস ক্লাবের সামনে সকাল ১০:৩০ ঘটিকা স্ব স্ব জেলার ব্যানার মানববন্ধন, সমাবেশ ও পরবর্তী কর্মসূচী ঘোষণা করা হবে বলে জেলা কমিটি জানিয়েছে। 


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।