ধুনটে ছাত্রলীগের সমাবেশকে কেন্দ্র করে ককটেল বিস্ফোরণ

ধুনটে ছাত্রলীগের সমাবেশকে কেন্দ্র করে ককটেল বিস্ফোরণ


রফিকুল আলম,ধুনট (বগুড়া): বগুড়ার ধুনট উপজেলায় ছাত্রলীগের দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি বিক্ষোভ সমাবেশকে কেন্দ্র করে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এর জের ধরে শহরের মুজিব চত্বর এলাকায় ১২ ঘন্টার জন্য ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মুজিব চত্বর ও তার আশপাশের ৪০০ গজ এলাকায় ১৪৪ ধারা বলবৎ রাখা হয়। ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী বিচারক সঞ্জয় কুমার মহন্ত এ আদেশ জারি করেন।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে ধুনট শহরের মুজিব চত্বর এলাকায় বিক্ষোভ সমাবেশ আহব্বান করেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ স্বপন। একই সময় একই স্থানে পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য রাসেল খন্দকার পাল্টা বিক্ষোভ সমাবেশ আহব্বান করেন। ছাত্রলীগের দু’পক্ষের বিক্ষোভ সমাবেশকে কেন্দ্র করে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করে। এ অবস্থায় বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে মুজিব চত্বর এলাকায় কে বা কারা বিকট শব্দে পর পর ৭টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়।  

এ কারণে বুধবার মধ্যরাতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার আদেশে শহর এলাকায় মাইকিং করে ১৪৪ ধারা ঘোষনা করেন। এছাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ফেসবুক পেজেও এ সংক্রান্ত একটি গণবিজ্ঞপ্তি প্রচার করা হয়েছে। বিজ্ঞপ্তি অনুয়ায়ী বৃহস্পতিবার মুজিব চত্বর ও তার আশপাশের এলাকায় সকল প্রকার সভা, সমাবেশ, মিটিং, মিছিল ও গণজমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এই আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, মুজিব চত্বর এলাকায় ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এছাড়া মুজিব চত্বর ও আশপাশের এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সঞ্জয় কুমার মহন্ত বলেন, মুজিব চত্বর এলাকায় একই সময় দুই পক্ষের সমাবেশকে কেন্দ্র করে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কায় জরুরিভাবে ঘটনাস্থলে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।  



শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।