জামালপুরে আগুনে পুড়ে স্ত্রীর পর মারা গেলেন স্বামীও

জামালপুরে আগুনে পুড়ে স্ত্রীর পর মারা গেলেন স্বামীও


জামালপুর প্রতিনিধি : জামালপুরে রান্না ঘরে পেট্রোলের ড্রাম বিস্ফোরনে আগুনে পুড়ে নিহত গৃহবধু সানজিদা আক্তার শিপরার স্বামী একই দুর্ঘটনায় দগ্ধ ইকরামুল হক শুভ্র (৩৩) মারা গেছে। 

গতকাল মঙ্গলবার রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। গত ২১ মার্চ রবিবার পৌর এলাকার রশিদপুর গ্রামে গ্যাসের চুলায় রান্না করার সময় পাশের পেট্রোল ভর্তি ড্রাম বিস্ফোরণে ওই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতের পরিবারের স্বজনরা জানান, গত রবিবারের আগ্নিকান্ডের ঘটনায় রশিদপুর গ্রামের মো. বেলাল হোসেনের একমাত্র ছেলে আগুনে পুড়ে নিহত সানজিদা আক্তার শিপরার স্বামী ইকরামুল হক শুভ্রও মারত্বকভাবে দগ্ধ হন। 

পরে স্থানীয়রা তাকে প্রথমে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান পরে সেখান থেকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। কিন্তু অবস্থার অবনতি হওয়ায় ওইদিনই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে ভর্তি করা হয়। 

গতকাল মঙ্গলবার গভীর রাতে ঘটনার তিনদিন পর সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় ইকরামুল হক শুভ্রর। রাতেই তার স্বজনরা মৃতদেহ নিয়ে জামালপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়, বুধাবার সকালে তারা বাড়ি পৌছান। দুপুরে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে স্ত্রী সানজিদা আক্তার শিপরার কবরের পাশেই ইকরামুল হক শুভ্রকে দাফন করা হয়।

উল্লেখ্য, গত রবিবার ২১ মার্চ রান্না করার সময় পাশে রাখা পেট্রোলের ড্রাম বিস্ফোরণ হয়ে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই আগুনে পুড়ে মারা যায় সানজিদা আক্তার শিপরা ও মারাত্মক দগ্ধ হয় তার স্বামী ইকরামুল হক শুভ্র। তবে দাদার বাড়িতে অবস্থান করায় রক্ষা পায় তাদের ৫ বছর বয়সী একমাত্র শিশু কন্যা সোয়াইফা। জামালপুর পৌরসভার 

রশিদপুর বাজারে দোকান ভাড়া নিয়ে খোলাবাজারে ডিজেল-পেট্রোলের ব্যবসা করতেন ইকরামুল। দোকানের কাছেই স্থানীয় মোজাম্মেল হোসেনের একটি টিনের ঘর ভাড়া নিয়ে স্ত্রী সানজিদা ও কন্যা সন্তানকে নিয়ে বসবাস করতেন তিনি। 
 



শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।