ধুনটে কৃষিপণ্য পরিবহনে কদর বাড়ছে ঘোড়ার গাড়ির

ধুনটে কৃষিপণ্য পরিবহনে কদর বাড়ছে ঘোড়ার গাড়ির


রফিকুল আলম,ধুনট (বগুড়া): এক সময় ঘোড়াই ছিল প্রাচীন সভ্যতার একমাত্র বাহন। সেই ঘোড়া টানা গাড়িই এখন আবার জনপ্রিয় হয়ে উঠছে বগুড়ার ধুনট উপজেলায়। এখানকার গ্রামীণ এলাকার কৃষিপণ্য পরিবহনে আধুনিক প্রযুক্তির ছোয়ায় নির্মিত পরিবেশ বান্ধব ঘোড়ার গাড়ির কদর বাড়ছে। এ উপজেলায় শতাধিক ঘোড়ার গাড়ি কৃষিপণ্য বহনে এখন ব্যাপক ভূমিকা রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পুরাতন কাঠের চাকার বদলে পিকআপের পরিত্যাক্ত চাকা বসিয়ে গ্রামীণ মানুষেরা তৈরি করছেন এই নতুন শ্রেণির ঘোড়ার গাড়ি। ফলে সনাতন ঘোড়ার গাড়ির তুলনায় বর্তমানের এই ঘোড়ার গাড়ির গতি বেড়েছে। শুধু কৃষিপণ্য নয় ঘোড়ার গাড়ি ব্যবহৃত হচ্ছে ইটসহ বিভিন্ন ধরণের রকমারি পণ্য পরিবহণে। এ কারণে ধান ও নিত্যপণ্য আনা নেওয়ার কাজে ঘোড়ার গাড়ির উপর নির্ভশীলতা বেড়েছে।

পরিবহনের কাজে ব্যবহার করা এই ঘোড়াগুলো বেশিরভাগই ব্যক্তি মালিকানাধীন। এই এলাকায় প্রতিবছর ঐতিহ্যবাহী খেলা ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা হয়। এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে এলাকার অনেক সৌখিন মানুষ ঘোড়া কিনেন। সেই ঘোড়াগুলোই এখন পণ্য পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে। তাই নিজের জমির ধান পরিবহন করতে শখে কেনা ঘোড়া ব্যবহার করছেন। অনেক ঘোড়ার মালিক চালকের মাধ্যমে এলাকায় পরিবহন সেবা দিচ্ছেন। এত করে তার ব্যক্তিগত আয়ের পাশাপাশি কৃষকরাও স্বল্প খরচে সেবা পাচ্ছেন।

এলাকার কৃষকরা জানিয়েছেন, ইঞ্জিন চালিত নসিমন, করিমন কিংবা সাধারণ ভ্যানের তুলনায় এই ঘোড়ারগাড়ি সময় ও ভাড়ার দিক দিয়ে বেশ সুবিধাজনক। অন্যান্য যানবাহনে ১৫ থেকে ২০ বস্তা কৃষিপণ্য বহন করতে যেখানে খরচ হয় ১হাজার টাকার উপরে। সেখানে এ ধরণের ঘোড়ার গাড়িতে খরচ হয় ৪ থেকে ৫শ টাকা। যে কারণে পণ্য পরিবহনে তারা এটিকে এখন অগ্রাধিকার দিচ্ছেন। তাছাড়া এটি গ্রামের যে কোন রাস্তাতেই চলাচল করতে পারে বলে পণ্য পরিবহণে তারা বেশি সুবিধা পাচ্ছেন।

ঘোড়ার গাড়ি চালকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তারা সাধারণত মাইক্রোবাসের পুরোনো চাকা দিয়ে ঘোড়ার গাড়ি তৈরি করেন। প্রতিটি গাড়ি তৈরি করতে খরচ পড়ে ১২-১৪ হাজার টাকা। আর ঘোড়া কিনতে লাগে আরও ২৫-৩০ হাজার টাকা। দিনে আয় হয় ৪০০-৫০০ টাকা। তা দিয়ে পরিবারের ভরণপোষণসহ ছেলে-মেয়েদের লেখাপড়ার খরচ বহন করে আসছেন তারা। যেখানে অন্য কোনো গাড়ি সাধারণত চলাচল করতে পারে না সেখানেই তারা মালামাল বহন করে থাকেন।   



শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।