ঘুরে এলাম শেরপুরের অর্কিড পর্যটন কেন্দ্র

ঘুরে এলাম শেরপুরের অর্কিড পর্যটন কেন্দ্র
শেরপুরের অর্কিড পর্যটন কেন্দ্রে লেখক।। ছবি: সেবা হট নিউজ


শেরপুর শহরের পাশে অবস্থিত একটি পর্যটন কেন্দ্র “অর্কিড”। পৌরসভার ভিতরে কান্দাপাড়া এলাকায় শেরপুর থেকে ঝিনাইগাতি যাওয়ার রাস্তার পাশে ব্যক্তি উদ্যোগে গড়ে তোলা হয়েছে পর্যটন কেন্দ্রটি।

সবুজে সমারোহ ভরপুর অর্কিড পর্যটন প্রকল্প। পুরো অর্কিড প্রকল্পটি যেন শিল্পীর তুলির ছোঁয়ায় আকা গভীর চিন্তার এক শিল্পকর্ম। 

নিজের একঘেয়েমিকে দূর করে মনকে প্রশান্তি করার জন্য অন্য রকম পাকৃতিক এবং কৃত্রিম পরিবেশ সমৃদ্ধ পর্যটন কেন্দ্রটি। 

“মাছে ভাতে বাঙ্গালী” কথাকে স্বরণ করিয়ে দেওয়ার জন্য অর্কিডে প্রবেশের পর সম্মুখে রয়েছে একটি পুকুর। পুকুরের মাছগুলো খাওয়ার জন্য চারপাশে প্রতিনিয়ত ভীড় করে মাছরাঙা এবং সাদা বক।

দর্শনার্থীদের আনন্দ দেওয়ার জন্য রয়েছে খাঁচার ভিতর খেলা করে বানর, এছাড়াও রয়েছে টার্কি, কালিমসহ বিভিন্ন প্রজাতির দেশীয় প্রাণী। পাকৃতিক এবং কৃত্রিম সংমিশ্রণে রয়েছে কর্টেজ। 

সবুজে ভরপুর করতে সারি সারি দাড়িয়ে আছে দেশী-বিদেশী গাছগাছালি। স্বস্তির নিঃশ্বাস নিয়ে বসে গল্প করার জন্য রয়েছে মেশিনে কাটিং করা বড় বড় সবুজ ঘাস। 

সারা অর্কিড জুড়ে আছে নানা প্রজাতির বাহারি থোকা থোকা ফুল। বনায়নে ভরপুর হওয়ায় দেশবিদেশি বহু প্রজাতির পাখির কলরব মুগ্ধ করে দর্শনার্থীদের। 

বন্ধুবান্ধব, প্রিয়জনের সাথে গল্প করার জন্য রয়েছে বেশ কিছু বড় বড় ছাতা এবং ছাতার নিচে বসার জন্য রয়েছে চেয়ারের সু-ব্যবস্থা। চা-কফি, চিপস খাওয়ার জন্য রয়েছে কেন্টিনের ব্যবস্থা।

বন্ধু-বান্ধবী জলধারে বসে বসে পা ভিজিয়ে গল্প করার জন্য রয়েছে সান বাঁধানো বিশাল জমিদারি পুকুর। অর্কিডের সৌন্দর্য্য হেটে হেটে দেখার জন্য রয়েছে সরু রাস্তা। 

মায়ের সাথে আসা শিশুদের খেলাধুলা করার জন্য রয়েছে দোলনা, চড়কিসহ সকল প্রকার খেলনা সামগ্রিক। 

মোহাম্মদ মোশারফ হোসেন
উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার
শ্রীবরদী শেরপুর

শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।