রৌমারীতে ইউপি চেয়ারম্যানকে হত্যার চেষ্টায় থানায় মামলা

রৌমারীতে ইউপি চেয়ারম্যানকে হত্যার চেষ্টায় থানায় মামলা



শফিকুল ইসলাম: কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার যাদুরচর ইউপি চেয়ারম্যান সরবেশ আলী (৫০)কে দেশিয় ধারালোা অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তারই চাচাতো ভাই তারা মিয়া (৪৪)কে আটক করেছে রৌমারী থানার পুলিশ। গত রবিবার সকালের দিকে উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়নের সায়দাবাদ গ্রামে চেয়ারম্যানের নিজ বাসভবনে এ ঘটনা ঘটে। আহত সরবেশ আলী চেয়ারম্যান সায়দাবাদ গ্রামের মৃত সাগর আলী দেওয়ানীর ছেলে। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কথিত তারা মিয়া ঘটনার দিন ইউপি চেয়ারম্যান সরবেশ আলীর নিজ ঘরে ঘুমন্ত অবস্থায় ডেকে তোলে। কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই দরজার ছিটকেরি দিয়ে দেশিয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথারি ভাবে কুপাতে থাকে সরবেশকে। পরে তার আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে এবং তারা মিয়াকে আটক করে থানায় সোপর্দ করা হয়। এসময় সরবেশ আলীকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে রৌমারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

চেয়ারম্যান সরবেশ আলী জানান, ওর সাথে জমিজমা নিয়ে আমার কোন দ্বন্দ নেই। তবে আমি পরপর তিনবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। রাজনৈতিক ভাবে আমাকে ক্ষতি করার জন্যই পরিকল্পিত ভাবে এঘটনা ঘটাতে পারে। আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে চাইনিজ কুড়াল দিয়ে কুপিযেছে। সবার দোয়ায় আল্লাহ আমাকে বাঁচিয়েছে।

রৌমারী থানার অফিসার ইনচার্জ মোন্তাছের বিল্লাহ বলেন, সরবেশ আলী চেয়ারম্যান বাদী হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। আসামিকে স্থানীয়রা  আটক করে থানায় খবর দেয়। পরে তারা মিয়াকে আটক করে থানায় আনা হয় এবং তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

 


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।