ঐতিহ্যবাহী ঘোল ব্যবসায়ে উল্লাপাড়ার মালেক পেলেন জাতীয় পুরষ্কার

ঐতিহ্যবাহী ঘোল ব্যবসায়ে উল্লাপাড়ার মালেক পেলেন জাতীয় পুরষ্কার



 : করোনা মহামারিকালে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া ও শাহজাদপুরের গরু খামারিদের উৎপাদিত দুধ তাদের বাড়ি থেকে বিক্রির সুযোগ তৈরি এবং দুধ প্রক্রিয়াজাত করণে বিশেষ অবদান রাখায় উল্লাপাড়ার সলপের ঘোল ব্যবসায়ী আব্দুল মালেক পেলেন জাতীয় পুরষ্কার। 


বিশ্ব দুগ্ধ দিবস-২০২২ উপলক্ষে বুধবার বিকেলে ঢাকার খামারবাড়িতে কৃষিবিদ ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে মালেকের হাতে এই পুরষ্কার তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। এই মন্ত্রনালয়ের সচিব ড. মোহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহা-পরিচালক ডা. মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহাজাদা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।


উল্লাপাড়া উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. মোর্শেদ উদ্দিন আহমেদ জানান, উপজেলার সলপের ঐতিহ্যবাহী ঘোল ব্যবসায়ী আব্দুল মালেক ২০২০ ও ২০২১ সালে করোনা মহামারিকালে গরুর খামারিদের উৎপাদিত দুধ বাড়ি বাড়ি গিয়ে ন্যায্য মুল্যে ক্রয় করে ঘোল তৈরি করে তা বিক্রি করেন। একই সঙ্গে দুধ প্রক্রিয়াজাত করণেও তার বিশেষ অবদান রয়েছে। আর এসব কারণে এ বছর প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর তাকে জাতীয় পুরষ্কারে ভূষিত করে। মালেককে দেওয়া হয় ১ লাখ টাকার চেক, ক্রেষ্ট ও সনদপত্র। ঢাকায় অনুষ্ঠিত বিশ্ব দুগ্ধ দিবসের অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখার জন্য দেশের ৪০ ব্যক্তিকে পুরষ্কার দেওয়া হয়। এদের মধ্যে আব্দুল মালেক অন্যতম। প্রসঙ্গতঃ আব্দুল মালেকের উৎপাদিত ঘোল স্বাদে মানে অনন্য হওয়ায় দেশের উত্তর অঞ্চলে এই ঘোলের প্রচুর সুনাম রয়েছে। রয়েছে খ্যাতি। করোনাকালেও মালেক খামারিদের নিকট থেকে প্রতিদিন ৪/৫ হাজার লিটার দুধ কিনে ঘোল তৈরি করে বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করেছেন। আর এতে সেই দুঃসময়ে উপকৃত হয়েছেন এলাকার গরু খামারি ও কৃষকেরা। বস্তুতঃ এসব কারণেই এবছর জাতীয় পুরষ্কারের জন্য সিরাজগঞ্জ জেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগ আব্দুল মালেক এর নাম প্রস্তাব করেন। 



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।