নন্দীগ্রামে হাসপাতাল সড়কে জলাবদ্ধতা, নিম্নমানের নির্মাণকাজ

নন্দীগ্রামে হাসপাতাল সড়কে জলাবদ্ধতা, নিম্নমানের নির্মাণকাজ



 : বগুড়ার নন্দীগ্রামে বৃষ্টির পানিতে বিজরুল সরকারি হাসপাতাল সড়কে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। পানি নিস্কাসনের ব্যবস্থা না থাকায় রোগী আসা-যাওয়ার এই সড়কে ভোগান্তি বেড়েছে। অনেকের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পানি ঢুকেছে। ফলে ক্ষতির মুখে রয়েছেন ব্যবসায়ীরা। 


গতকাল শনিবার বিকেলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মুখে বিজরুল বাজারে এমন চিত্র দেখা গেছে। নিচু রাস্তা, নেই কোনো ড্রেনেজ ব্যবস্থা। ৩৬ ঘন্টা জলাবদ্ধতা থাকার পর পানি নিস্কাসনের জন্য নালা কেটে দেওয়া হয়েছে। 

স্থানীয়রা বলছেন, নিচু সড়কে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে নির্মাণকাজ ও পানি নিস্কাসনের ব্যবস্থা না থাকায় ক্ষনিকের বৃষ্টিতে ডুবে যায় সড়ক। ফলে বছরের পর বছর দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন শতশত মানুষ। 


তবে উপজেলা প্রকৌশলী বলছেন, সড়কের দুই পাশে হাউজিং। তারা বাসা-বাড়ির পানি সরাসরি সড়কের উপর ফেলায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। 


সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বিজরুল সরকারি হাসপাতাল, ভাটগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ, বিজরুল দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়, মেধাবিকাশ কেজি একাডেমী, বালিকা দাখিল মাদ্রাসা, বিজরুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকে যাতায়াতের এই সড়কে চলাচলরত যানবাহনের যাত্রী ও পথচারিরা দুর্ভোগে পড়েছেন। 

বিজরুল বাজারে এই সঙ্গে হাটকড়ই, নন্দীগ্রাম সদর, বগুড়া-নাটোর মহাসড়ক এবং জামাদার পুকুর হয়ে বগুড়া, নাটোর, রাজশাহী ও রাজধানীর ঢাকায় যাওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ সংযোগ রয়েছে। 


প্রাপ্ততথ্যে জানা গেছে, ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে আতাইল বাজার থেকে বিজরুল-বর্ষণ মোড় পর্যন্ত ৪ কিলো ১০০ মিটার সড়কের নির্মাণকাজ গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে শুরু হয়েছে। চলতি জুন মাসের মধ্যে কাজ শেষ হবে বলে জানানো হয়েছে। 


বিজরুল বাজারের ব্যবসায়ী রফিকুল, রেজাউল, নুরনবী ও মনজুর রহমান বলেন, বৃষ্টি হলে দোকানে পানি ঢুকে ব্যবসার ক্ষতি হয়। নিচু রাস্তা উঁচু করে নির্মাণকাজ এবং ড্রেনেজ ব্যবস্থা করলে আর জলাবদ্ধতা হতো না। 


ভাটগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বলেন, সড়কের নির্মাণকাজে নিম্নমানের সামগ্রী বা অনিয়মের বিষয়ে মন্তব্য করতে চাইনা। তবে বিজরুল বাজারের এই সড়কে পানি নিস্কাসনের ব্যবস্থা করা জরুরি। 


এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী শা-রিদ শাহনেওয়াজ বলেন, সড়কটি আরো নিচু ছিল, অনেকটা উঁচু করে তারপর নতুন করে নির্মাণকাজ করা হচ্ছে। জলাবদ্ধতার খবর পেয়ে তিনি সরেজমিনে গিয়েছিলেন। এক ব্যক্তি রাস্তার পাশে তার পুকুরেরপাড় উঁচু করায় সড়কে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। সেখানে নালা কেটে পানি নামার ব্যবস্থা করা হয়েছে। নালা বন্ধ করে ফের জলাবদ্ধতা হলে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 


এ প্রসঙ্গে বগুড়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোশারফ হোসেন বলেন, সড়কের নির্মাণকাজে নিম্নমানের সামগ্রী বা অনিয়ম হলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। হাসপাতাল গুরুত্বপূর্ণ, জলাবদ্ধতা নিরসনে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।