নন্দীগ্রামে প্রাণিসম্পদ হাসপাতালে রাতে ওড়ে জাতীয় পতাকা

নন্দীগ্রামে প্রাণিসম্পদ হাসপাতালে রাতে ওড়ে জাতীয় পতাকা



 : বগুড়ার নন্দীগ্রামে উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতালে রাত হলেও ওড়ে জাতীয় পতাকা। এনিয়ে কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েছেন কর্তারা। কখনো কখনো দিনে অফিস চলাকালেও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়না। বুধবার (২০ জুলাই) রাতে ওই অফিসে জাতীয় পতাকা উত্তোলন থাকা অবস্থায় দেখা গেছে। 

প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে জাতীয় পতাকা অবমাননা, হাতুড়ে কথিত ডাক্তারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয়াসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা। 


জানা গেছে, উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরে বুধবার দিবাগত রাতের আঁধারেও জাতীয় পতাকা উত্তোলন থাকতে দেখা গেছে। এরআগে সম্প্রতি দিনের বেলায় অফিস চালাকালে ওই দপ্তর জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেনি। 

দিন ও রাতের দুটি ভিডিও এবং বেশকিছু ছবি গতকাল বৃহস্পতিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এদিকে রাতে পতাকা উড়তে দেখে কয়েকজন পথচারী বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানানোর পরও পতাকা নামানোর তাৎক্ষণিক কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। 


নিয়ম অনুয়ায়ী, জাতীয় পতাকা সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত উত্তোলিত থাকবে এবং সূর্যাস্তের পর কোনো মতেই পতাকা উড্ডীয়ন অবস্থায় থাকবে না। জেনে হোক বা অজ্ঞতার কারণে হোক, জাতীয় পতাকার অবমাননা একটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ। 


স্থানীয় কয়েকজন ব্যক্তি জানান, এই অফিসে কেবল সেদিন রাতেই শুধু না, এরআগেও একাধিকবার জাতীয় পতাকা রাতে উত্তোলন করা ছিল। আবার অনেক সময় দিনের বেলাতেও জাতীয় পতাকা টাঙানো হয়না। উপজেলা সদর, কুন্দারহাট, সিমলাসহ বিভিন্ন এলাকায় কথিত ডাক্তারের সংখ্যা দিনদিন বাড়ছে। তারা মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পশুকে ইনজেকশন দিয়ে ৩ হাজার থেকে ৪ হাজার টাকা পর্যন্ত নেয়। তাদের সঙ্গে প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার সখ্যতা রয়েছে। অনেক সময় ভুল চিকিৎসায় পশু হত্যার ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানানোর পরও হাতুড়ে ডাক্তারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়না। 


এ ব্যাপারে মন্তব্য নিতে যোগাযোগ করা হলে উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ভেটেরিনারি সার্জন) মো. শরিফুল ইসলাম ফোন কল রিসিভ করেননি। উপ-সহকারী প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান বলেন, এ বিষয়ে মন্তব্য করতে চাইনা। 


নন্দীগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শিফা নুসরাত বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 


এ প্রসঙ্গে জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত) ডা: মো: সাইফুল ইসলাম বলেন, রাতের বেলায় পতাকা উত্তোলন অবস্থায় রাখার বিষয়ে সত্যতা পেলে কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অবশ্যই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।