৫.৫জি হবে ভবিষ্যত গড়ার ভিত্তি: ডেভিড ওয়্যাং

: ‘গ্লোবাল এমবিবি ফোরাম ২০২২’ চলাকালীন হুয়াওয়ের বোর্ডের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ও আইসিটি ইনফ্রাস্ট্রাকচার ম্যানেজিং বোর্ডের চেয়ারম্যান ডেভিড ওয়্যাং ‘স্ট্রাইড টু ৫.৫জি: দ্য ফাউন্ডেশন অব দ্য ফিউচার’ শীর্ষক মূল বক্তব্য প্রদান করেন। 

৫.৫জি হবে ভবিষ্যত গড়ার ভিত্তি ডেভিড ওয়্যাং



 ডেভিড ওয়্যাং তার বক্তব্যে আলোচনা করেন কীভাবে সমন্বিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে এই খাত উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি সাধন করেছে এবং ৫.৫জি প্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহারে প্রস্তুতি গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এই মাইলফলক অর্জনের জন্য এই খাতসংশ্লিষ্ট সকলকে প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে, যাতে করে তারা ৫.৫জি প্রযুক্তির যুগে দ্রুত অগ্রসর হতে পারেন এবং সবার সম্মিলিত প্রয়াসে একটি উন্নত ও ইন্টেলিজেন্ট বিশ্ব গড়ে তোলা যায়।           

ইন্টেলিজেন্ট বিশ্ব দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে, আমরা বর্তমানে যে পরিবর্তনগুলোর অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছি তার সবই ডিজিটাল অবকাঠামোর ক্রমবর্ধমান চাহিদার সাথে সমন্বিত। ইন্টেলিজেন্ট বিশ্বে আমাদের পরবর্তী মাইলফলকটি অবশ্যই ৫.৫জি প্রযুক্তির মাধ্যমে ১০জিবিট/এস অভিজ্ঞতা প্রদান করবে, যা অসংখ্য সংযোগকে সহায়তা প্রদান করবে এবং নেটিভ ইন্টেলিজেন্স অর্জনে সহায়তা করবে।

অনুষ্ঠানে ওয়্যাং গুরুত্বারোপ করে বলেন, এই খাতে দুই বছরের সমন্বিত প্রচেষ্টার পর ৫.৫জি প্রযুক্তিতে বিশাল অগ্রগতি দৃশ্যমান হয়েছে এবং তিনটি বিষয় স্পষ্ট হয়েছে। 

প্রথমত, ৫.৫জি প্রযুক্তি এর স্ট্যান্ডার্ডাইজেশন শুরু হয়েছে এবং এটি সঠিক পথে রয়েছে, যা একে সাধারণ দৃষ্টিভঙ্গির চেয়ে ব্যতিক্রমী করে তুলেছে।    

দ্বিতীয়ত, এই খাতটি ৫.৫জি প্রযুক্তির জন্য মূল প্রযুক্তিতে অগ্রগতি অর্জন করেছে এবং আল্ট্রা- লার্জ ব্যন্ডউইথ এবং ইএলএএ এখন ১০ জিবিট/এস অভিজ্ঞতা দিতে সক্ষম। 

তৃতীয়ত, আইওটি ল্যান্ডস্কেপের জন্য এই খাতের একটি স্পষ্ট ভিশন রয়েছে। ৫.৫জি প্রযুক্তি সমর্থিত (এনবি-আইওটি, রেডক্যাপ এবং প্যাসিভ আইওটি) তিন ধরনের ৫.৫জি প্রযুক্তি দ্রুতভাবে বিকশিত হচ্ছে এবং এটি বিপুল সংখ্যক আইওটি সংযোগকে সমর্থন করছে।  

এই বিষয়ে ওয়্যাং বলেন, “যোগাযোগ খাত ধারাবাহিকভাবে বিকশিত হচ্ছে। ৫.৫জি প্রযুক্তির বিকাশ বেশ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে। সামনের দিনগুলোতে আমাদের পাঁচটি নতুন খাত নিয়ে কাজ করতে হবে। এগুলো হলো: স্ট্যান্ডার্ড, স্পেকট্রাম, প্রডাক্ট, ইকোসিস্টেম ও অ্যাপ্লিকেশন। একসাথে আমরা ৫.৫জি’র অভিমুখে অগ্রসর হয়ে একটি উন্নত এবং ইন্টেলিজেন্ট বিশ্ব বিনির্মাণ করতে পারবো।”

প্রথমত, আমাদের মানদণ্ড ঠিক করতে হবে এবং প্রযুক্তিগত গবেষণায় উৎসাহিত করতে হবে 

এই মানদণ্ডগুলো মোবাইল যোগাযোগ খাতকে চালিত করে এবং ৫.৫জি প্রযুক্তিকে স্পষ্টভাবে একটি নির্দিষ্ট পথ ধরে এগিয়ে নিয়ে যাবে। পরিকল্পনা অনুযায়ী, ২০২৪ সালের প্রথম প্রান্তিকের মধ্যে রিলিজ ১৮ এর বিষয়গুলো ঠিক করতে আমাদের অবশ্যই কাজ করতে হবে, যা ৫.৫জি নেটওয়ার্ক এর ক্ষেত্রে ১০ গুণ উন্নত পারফরমেন্স দিতে সহায়তা করবে। রিলিজ ১৯ এবং অন্যান্য বিষয়েও আমরা ৫.৫জি স্ট্যান্ডার্ডগুলোকে পরিমার্জিত করার সাথে সাথে নতুন পরিষেবা এবং পরিস্থিতিগুলোকে সমর্থন করার জন্য ৫.৫জি এর কী কী সক্ষমতার প্রয়োজন হবে তা খুঁজে বের করতে আমাদের একসাথে কাজ করতে হবে।       

দ্বিতীয়ত, আল্ট্রা- লার্জ ব্যান্ডউইথ এর জন্য আরো স্পেকট্রাম প্রস্তুত করতে হবে

আল্ট্রা- লার্জ ব্যান্ডউইথ তৈরি করতে সবাইকে সাব-১০০ গিগাহার্টজ রিসোর্সগুলো সম্পূর্ণরূপে ব্যবহার করা উচিত। এমএমওয়েভ হলো ৫.৫জি প্রযুক্তির জন্য একটি মূল ফ্রিকোয়েন্সি ব্যান্ড। অপারেটরদের প্রতি সেকেন্ডে ১০গিগাবাইটস অভিজ্ঞতা পেতে হলে এই ব্যান্ড থেকে ৮০০ মেগাহার্টজ এর বেশি স্পেকট্রাম অর্জন করতে হবে। ৬ গিগাহার্টজ হলো ৫.৫জি এর জন্য একটি সম্ভাব্য আল্ট্রা-ওয়াইড ব্যান্ড। যখন ৬ গিগাহার্টজ একটি আইএমটি ব্যান্ড হিসেবে ডব্লিউআরসি-২৩ কে উৎসাহিত করা হয় তখন দেশগুলোকে ৬ গিগাহার্টজ তরঙ্গ নিলাম করতে হবে। আমরা ৫.৫জি প্রযুক্তি এর জন্য আল্ট্রা- লার্জ ব্যান্ডউইথ অর্জন করতে সাব ৬ গিগাহার্টজকে পুনরায় ঢেলে সাজাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবো।               

তৃতীয়ত, উন্নত নেটওয়ার্ক, ডিভাইস ও চিপসের এর সমন্বয়ে ৫.৫জি প্রযুক্তির জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ 

অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, উন্নত নেটওয়ার্ক, ডিভাইস ও চিপসের সমন্বয়ে ৫.৫জি প্রযুক্তির জন্য সবাইকে প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে। এর পাশাপাশি, ৫.৫জি প্রযুক্তিকে আরো ইন্টেলিজেন্ট করতে আরো উদ্ভাবনী প্রযুক্তির প্রয়োজন।  

চতুর্থত, একটি প্রবৃদ্ধিশীল ৫.৫জি ইকোসিস্টেম তৈরিতে সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে। 

পঞ্চমত, উদ্ভাবনী অ্যাপ্লিকেশনগুলো তৈরিতে সবাইকে একসাথে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি। 

জিএসএমএ ও জিটিআই’ এর মতো খাতসংশ্লিষ্ট সহযোগীদের নিয়ে হুয়াওয়ে গ্লোবাল মোবাইল ব্রডব্যান্ড ফোরাম ২০২২ আয়োজন করে। বার্ষিক এই ফোরামে ফাইভজি’র বাণিজ্যিক সফলতা এবং গ্রিন ডেভেলপমেন্ট, ইন্টেলিজেন্স ও ফাইভজির বিবর্তনের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোচনার জন্য মোবাইল নেটওয়ার্ক ক্যারিয়ার, এই খাতের শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দ এবং ইকোসিস্টেমের অংশীজনরা উপস্থিত হয়েছিলেন। 



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।