উল্লাপাড়ায় গুড়া মসলায় কাপড়ের রং মিশিয়ে বিক্রির অভিযোগ

🕧Published on:

 : বাজারে গুড়া মসলার দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় অসাধু ব্যবসায়ীরা নিম্নমানের পঁচা শুকনো মরিচে কাপড়ে দেওয়ার পাকা লাল রং, হলুদে এ্যাংকারের পঁচা ডাল এবং ধনীয়ার গুড়ায় মিশানো হচ্ছে পঁচা চাউলের খুদের গুড়া। এতে প্রতারিত হচ্ছে সাধারণ ক্রেতা। ব্যাপক স্বাস্থ্য ঝুঁকির সম্মুখীন হচ্ছেন মানুষ।

উল্লাপাড়ায় গুড়া মসলায় কাপড়ের রং মিশিয়ে বিক্রির অভিযোগ



 শুক্রবার সকালে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার কয়ড়া, বালসাবাড়ী ও লাহিড়ী মোহনপুর বাজারের কয়েকটি দোকান ও মসলা ভাঙ্গানোর মিলে সরেজমিনে গেলে এমন ভয়ংকর চিত্র উঠে আসে সাংবাদিকদের কাছে। অসাধু ব্যবসায়ীরা সাংবাদিকের খবর পেয়ে এ সময় দ্রুত পালিয়ে যায় মিল থেকে। ভেজাল মসলার ব্যবসায় উৎসবে মেতে উঠেছে ব্যবসায়ীরা।


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন ক্রেতা অভিযোগ করে বলেন, পচা ও ফটকা মরিচ পাইকাররা মিলে ভাংগানোর সময় তাতে কাপড়ে দেওয়া পাটের রং মিশিয়ে বাজারে ভেজাল মসলা বিক্রি করছে।  


বালসাবাড়ী বাজারের ক্রেতা রুবেল হাসান অভিযোগ করে জানান, বাজার থেকে ভালো মানের শুকনো মরিচের গুঁড়ো ক্রয় করে বাসায় নিয়ে রান্নায় ব্যবহার করেন তিনি। রান্নার পর তিনি দেখতে পান তরকারিতে লাল রঙ্গের আস্তর পড়েছে পাতিলে। সেই তরকারি খেয়ে তার পরিবারের অধিকাংশ সদস্য পেটের পীড়া রোগে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন। তখন তারা ডাক্তারের শরণাপন্ন হলে ভেজাল গুঁড়া মসলা খাওয়ার কারণে এমন রোগের সৃষ্টি হয়েছে বলে জানান চিকিৎসক।


মোহনপুর বাজারের ফারুক হোসেন জানান, ভেজাল গুড়া মসলায় বাজার সয়লাব হয়ে গেছে। যা খেয়ে মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়ছে।


উল্লাপাড়ার কাওয়াক ৩০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের ডাঃ সামিউল ইসলাম রনি বলেন, ভেজাল গুড়ো মসলা খেলে সাধারণত মানুষ ডাইরিয়া, আমাশয় ও পেটের বিভিন্ন পীড়ায় আক্রান্ত হতে পারে। একটানা দীর্ঘ সময় খেলে ক্যান্সার সহ মারাত্মক রোগে আক্রান্ত হতে পারে মানুষ।


শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।