বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা: উল্লাপাড়ার মাঠে মাঠে দুলছে সরিষার হলদে ফুল

🕧Published on:

 : সিরাজগঞ্জের চলনবিল অধ্যুষিত কৃষি সমৃদ্ধ উল্লাপাড়া উপজেলায় গত বছরের তুলনায় এ বছরে সরিষায় বাম্পার ফলন হবে বলে জানান স্থানীয় কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা। 

বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা উল্লাপাড়ার মাঠে মাঠে দুলছে সরিষার হলদে ফুল



 উল্লাপাড়ার পশ্চিমাঞ্চলে সরিষার আবাদ তুলনামুলক বেশি হয়ে থাকে। সরিষা মাঠগুলোতে যেন হলুদ আবরনে ঢেকে গেছে। চারিদিকে দুলছে সরিষার হলদে ফুল। যে দিকে তাকাই -সে দিকেই দেখি শুধু হলুদ আর হলুদ। সরিষার ফুল দেখে চোখ যেন জুড়িয়ে  যায়। বেশীর ভাগ জমিতে সরিষার ফুল এসেছে, আর অল্প কিছু দিনের মধ্যেই সরিষার ফল দেখা যাবে। 


উপজেলার পশ্চিমাঞ্চলের কয়ড়া, লাহিড়ী মোহনপুর, বড়পঙ্গাশী, উধুনিয়া, বাঙ্গালা ও পূর্ণিমাগাঁতী ইউনিয়নের মাঠ গুলোতে এখন শোভা পাচ্ছে উচ্চ ফলনশীল জাতের সরিষা। 


উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে, ২০ হাজার ৫৬০ হেক্টর পরিমাণ জমিতে এবারের মৌসুমে সরিষা ফসল আবাদের সরকারি লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে । যা গত বছরের চেয়ে এবারে ১ হাজার ৭৫০ হেক্টর বেশী পরিমাণ জমিতে এ ফসলের আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে।


উল্লাপাড়া উপজেলার প্রায় সব মাঠেই সরিষা ফসলের আবাদ করা হয়। এ অঞ্চলের কৃষকেরা সেতি, মাঘি ও ধুপি জাতের সরিষা ফসলের আবাদ করে থাকেন। এর মধ্যে মাঘি জাতের সরিষা বেশী পরিমাণ জমিতে আবাদ করা হয়। 


সরেজমিনে গিয়ে, উল্লাপাড়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মাঠে এক কৃষক জানান, উল্লাপাড়া উপজেলার বড়পাঙ্গাসী  হাওড়া এলাকায় এবছরে প্রায় ৪ বিঘা জমিতে সরিষা আবাদ করেছি। বিলের পানি নেমে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই আমরা এই চাষ শুরু করেছি। সরিষা চাষে তুলনামূলক খরচ কম। তাছাড়া সরিষার দামও বেশ ভালো গতবার ৩ হাজার ও সাড়ে ৩ হাজার টাকায় প্রতিমন সরিষা বিক্রি করে লাভবান হয়েছি। আমার মতো এই এলাকার অনেক কৃষকেরা সরিষা আবাদ করেছে।


বড় পাঙ্গাসী এলাকার স্কুল শিক্ষার্থী তমা জানায়, এ মৌসুমে সরিষা চাষে মাঠে মাঠে হলুদ ফুল এলে প্রকৃতির সৌন্দর্য বেড়ে যায়। বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রকৃতি প্রেমিরা এ সৌন্দর্য উপভোগ করতে আসে।


গৃহিনী সালেহা জানান, সরিষা চাষ শুধু সরিষা নয়, এর সাথে মধু চাষেরও সংযোগ ঘটে এলাকায়। 


উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন কর্মকর্তা বলেন, উল্লাপাড়া উপজেলার প্রায় সব মাঠেই সরিষা ফসলের আবাদ করা হয়। কৃষকেরা বারী -১৪, বারী–৯ , বারী–১৭ জাতের সরিষা ফসলের আবাদ করছেন। এছাড়াও দেশীয় কালো মাঘি ও সেতি জাতের সরিষা আবাদ করছেন। এরইমধ্যে তার বিভাগ থেকে কৃষি প্রণোদনায় বহু সংখ্যক কৃষককে বিনামূল্যে সরিষা বীজ ও রাসায়নিক সার দেওয়া হয়েছে।


তিনি আরো জানান, এবারের মৌসুমে গত বছরের চেয়ে ১ হাজার ৭৫০ হেক্টর বেশী পরিমাণ জমিতে সরিষা ফসলের আবাদ হবে।


শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।