বকশীগঞ্জে ভূয়া শিক্ষকের নয় মাসের কারাদন্ড!

বকশীগঞ্জে ভূয়া শিক্ষকের নয় মাসের কারাদন্ড!


সেবা ডেস্ক: জামালপুরের বকশীগঞ্জে এইচএসসি (বিএম) পরীক্ষার অবৈধভাবে কক্ষ প্রত্যবেক্ষকের দায়িত্ব পালন করার অপরাধে এক ভূয়া শিক্ষককে নয় মাসের কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।
গতকাল বুধবার পৌর এলাকার রাহিলা কাদির স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, ওই কেন্দ্রে এইচএসসি (বিএম) পরীক্ষার কেন্দ্রে শিক্ষক না হওয়া সত্ত্বেও কক্ষ প্রত্যবেক্ষকের দায়িত্ব পালন করছিলেন মেহেদী হাসান রাজন নামে এক শিক্ষক। ওই শিক্ষক দাবি করেছেন তিনি চন্দ্রাবাজ রশিদা বেগম স্কুল অ্যান্ড কলেজের খন্ডকালীন শিক্ষক হিসেবে পরীক্ষায় প্রত্যবেক্ষকের দায়িত্ব পালন করতে এসেছেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবু হাসান সিদ্দিক বিষয়টি টের পেয়ে তাকে আটক করে যাচাই বাছাইয়ে ভূয়া শিক্ষক হিসেবে প্রমাণ পায়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে পাবলিক পরীক্ষা সমূহ/অপরাধ আইন ১৯৮০ এর ধারা মোতাবেক তাকে নয় মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন।


এদিকে চন্দ্রাবাজ রশিদা বেগম স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. রফিকুল ইসলাম জানান, মেহেদী হাসান রাজন তার কলেজের খন্ডকালীন শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন । তাই তাকে কক্ষ প্রত্যবেক্ষকের দায়িত্ব দেয়া হয়।
বুধবার বিকালে দন্ডপ্রাপ্ত মেহেদী হাসান রাজনকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।



, , ,
themeforestthemeforest