SebaBanner

হোম
চাঁদপুর সাহিত্য একাডেমীর ৫২তম মাসিক সাহিত্য আড্ডা

Chandpur Sahitya Academy's 52nd monthly literary chat

রকি সাহা : চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান বলেছেন, চাঁদপুর সাহিত্য একাডেমীর মাসিক সাহিত্য আড্ডায় আসতে পেরে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। এখানে এসে অনেকের সুন্দর সুন্দর কবিতা পাঠ শুনেছি। কবিতাগুলোও ভালো লেগেছে। আমি চাঁদপুরে এসেই প্রাণের একটি জায়গা খুঁজে বের করতে চেষ্টা করেছি।

আমি মনে করি, এই সাহিত্য একাডেমীই হলো আমার সেই কাঙ্ক্ষিত প্রাণের অন্যতম জায়গা। আমি সাহিত্য একাডেমীর একজন প্রত্যক্ষ অংশীদার, এর ভালোমন্দের দায়ভার আমার। একাডেমীর উন্নয়নের জন্যে আমার পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা ও সহযোগিতা থাকবে। সবার আন্তরিকতা থাকলে সাহিত্য একাডেমী সাধারণ মানুষের কাছে উদাহরণের মাধ্যম হয়ে থাকবে।


২৫ এপ্রিল ২০১৮ বুধবার সন্ধ্যায় সাহিত্য একাডেমী চাঁদপুর মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত নবপর্যায়ের ৫২তম মাসিক সাহিত্য আড্ডায় জেলা প্রশাসক তাঁর বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, সাহিত্য একাডেমীর উন্নয়নের জন্যে কমিটি গঠন করে কাজ শুরু করা হবে। সাহিত্য চর্চার মাধ্যমে মানুষের মনের ভেতরে থাকা প্রকৃত মানুষকে বের করে আনতে হবে। তাহলেই সমাজ সুন্দর ও আলোকিত হবে।


একাডেমীর মহাপরিচালক ও দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠের প্রধান সম্পাদক কাজী শাহাদাতের সভাপ্রধানে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ মঈনুল হাসান। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, শুদ্ধভাবে চর্চার মাধ্যমে চাঁদপুরের সাহিত্যকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। মনের ক্ষুদ্রতা, নীচতা দূর করে মনকে বিকশিত করতে হলে সাহিত্য চর্চার বিকল্প নেই। সাহিত্য চর্চা কাঙ্ক্ষিত সমাজ নির্মাণে অর্থবহ ভূমিকা রাখতে পারে।


সভাপ্রধানের বক্তব্যে কাজী শাহাদাত বলেন, সবার আন্তরিকতার কারণেই সাহিত্য আড্ডা নিরবচ্ছিন্নভাবে ৫২তম সংখ্যায় পৌছেছে। শুধু তাই নয়, চাঁদপুরের সাহিত্য চর্চাকে গতিশীল করতে সাহিত্য একাডেমী মাসিক আড্ডা প্রশংসনীয় ভূমিকা রাখছে। জেলা প্রশাসনের সহযোগিতা পেলে সাহিত্য একাডেমী আরো সচল ও প্রাণবন্ত হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।


প্রাবন্ধিক ও ছড়াকার ডাঃ পীযূষ কান্তি বড়ুয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব জীবন কানাই চক্রবর্তী, লোকগবেষক প্রকৌশলী মোঃ দেলোয়ার হোসেন, এসএম জয়নাল আবেদীন, ইকবাল পারভেজ, কাদের পলাশ, আসাদুল্লাহ কাহাফ ও মুহাম্মদ ফরিদ হাসান। বিকেল পাঁচটায় সাহিত্য একাডেমীর নিয়মিত মাসিক আড্ডা শুরু হয়।


মুহাম্মদ ফরিদ হাসানের সঞ্চালনায় আসরে গল্প পাঠ করেন তছলিম হোসেন হাওলাদার ও কাদের পলাশ। কবিতা পাঠ করেন সালাহউদ্দীন, পীযূষ কান্তি রায় চৌধুরী, ইকবাল পারভেজ, আলিজা হোসেন, শাকিবুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর আলম হৃদয়, ফেরারী প্রিন্স, হুসাইন লাবিব, আখতারুজ্জামান দিপু, ইয়াহু তাফু, কামরুল হোসেন, এইচ এম জাকির, আব্দুর রাজ্জাক, ফারজানাসহ আরো অনেকে। এ সময় ইনার ইহুল ক্লাব অব চাঁদপুর সেন্ট্রালের সভাপতি মুক্তা পীযূষসহ অনেক সাহিত্যকর্মী উপস্থিত ছিলেন।


আড্ডায় জেলা প্রশাসকের পরামর্শে একাডেমির সার্বিক উন্নয়নে করণীয় নির্ধারণে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ মঈনুল হাসানকে আহ্বায়ক করে একটি কমিটি গঠন করা হয়। যে কমিটি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সভায় বসে প্রস্তাবনা তৈরি করবে।


আড্ডার শুরুতেই সদ্যপ্রয়াত কবি বেলাল চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়। পরে আড্ডায় পঠিত লেখাগুলোর আলোচনা-সমালোচনা করেন উপস্থিত সাহিত্যকর্মীবৃন্দ। উল্লেখ্য, প্রতি মাসের শেষ বুধবার সাহিত্য একাডেমীর মাসিক সাহিত্য আড্ডা অনুষ্ঠিত হয়। আগামী সাহিত্য আড্ডা ও ইফতার ৩০ মে বিকেল ৪টায় অনুষ্ঠিত হবে। আড্ডায় যে কোনো সাহিত্যামোদী অংশগ্রহণ করতে পারবেন।


,

Home-About Us-Contact Us-Sitemap-Privacy Policy-Google Search