ধর্ষনরোধে কিছু কথা: শিব্বির আহমেদ রানা
ধর্ষনরোধে কিছু কথা: শিব্বির আহমেদ রানা

Some words to prevent rape: Shibbir Ahmed Rana

"ধর্ষণরোধে কোন আইন কার্যকর ভুমিকা রাখতে পারেনা, একমাত্র ধর্মীয় অনুশাসন না মানা পর্যন্ত"

এবার আসুন   -

#আপনি প্রথমত আপনার আদুরে কন্যাকে কোন পথে পরিচালিত করছেন তার হিসেবটা কষেন।

#আপনার মেয়ে কি ধর্মীয় শিক্ষায় বড় হচ্ছে? নাকী তথাকথিত মডার্নের প্রতিযোগীতায় পরিচালিত হচ্ছে?

#আপনি বাবা- মা হিসেবে মেয়ের গতিবিধি লক্ষ্য করছেন? কোথায় যাচ্ছে? কার সাথে সঙ্গ দিচ্ছে?

#আপনার মেয়ের পরনের পোশাক কি পশ্চিমা সংস্কৃতির আবেদন নাকি আমাদের ধর্মীয় আচরণে তা খেয়াল রেখেছেন কী?

#আপনার মেয়ে কি কোন ড্যাটিংয়ে বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতো?


#আপনি প্রথমত ধর্মীয় অনুশাসন মানেন কিনা, যদি ধর্মীয় অনুশাসনকে আপনি বলেন- সেকেলে! তাহলে আপনার তনয়ারা অাপনার পরিবেশে বড় হয়ে ধর্ষিত হবে একালে (বর্তমানে)।

#স্বর্ণের মুল্য বেশী বিধায় দোকানটাও পর্যাপ্ত সিকিউরিটিতে থাকে, দোকানের গ্রীল(দরজা) টাও বেশ শক্ত। আর ফুটপাতের দোকানগুলোর বিষয়টি ভিন্ন। কারন দামী জিনিসের সিকিউরিটি দরকার বেশী। নারীও বহু দামী, তার সিকিউরিটিও মজবুত হওয়া চাই। মজবুত সিকিউরিটির জন্য পরিবারকে ধর্মীয় অনুশাসনে পরিচালিত করুন।

#আপনার আদুরে মেয়ের হাতে খুব অল্প বয়ষে স্মার্ট ফোন ধরিয়ে দিয়েছেন জানেন, ঐদিন থেকে তাকে সর্বোচ্চ ক্ষতির স্কুলে ভর্তি করিয়েছেন?


#শেয়ালের সামনে মুরগী রেখে যতই টকশো করেন না কেন, শেয়াল কিন্তু ঠিকই মুরগি খাবে। ভাজা মাছের ডেকসির ডাকনা টা নিয়ে বিড়ালের সামনে রেখে দিয়ে যতমন্ত্র-তন্ত্র মারেন না কেন বিড়াল ঠিকই ভাজা মাছে ভাগ বসাবে। সার কথা হলো- পরপুরুষের কাছে নারীর আবেদনময়ী পরিবেশটা বন্ধ করুন। নতুবা কোন আইন দিয়ে ধর্ষণ ঠেকাতে পারবেনা।

#নারী অধিকারের নামে যেখানে সেখানে নারীর অবাধ উপস্থিত, মনগড়া সুশীলের টকশো সব তো লোক দেখানো বুলি। আসলেই তারাই নারী লোভী। অতচ তারা নামে সুশীল! নারীকে নারীর মতো করে চলতে দিন তবে, ধর্মীয় অনুশাসনে।

#আপনি যতবারই বলেন- ধর্ষণের জন্য একারণ বা ঐ কারণটাই দায়ী ছিলো। তা মোটেও না। ঘটনা হলেই কারন-অকারণের সূত্রপাত হবেই, তার কিন্তু প্রকৃত রহস্যাটা অধরা রয়ে যায়। এই জন্যে রোগের চিকিৎসা না করে প্রতিকারে সচেতন করুন।


যদি উপরোক্ত বিষয় গুলো আপনার দ্বারা মানা অসম্ভব, তাহলে ধর্ষণের জন্য আপনি প্রথমত দায়ী,তারপর আমাদের সমাজ ব্যবস্থা, তারপর আমাদের অাইন ও অাইনের অনুশাসন। কতো ইশিতা, নিশিতা, তাসফিয়া ধর্ষিত হবে অহরহ। তবে তার পূর্বেই সচেতন হোন। নইলে আর্তচিৎকারের কোন মুল্য আমার অভিধানে নাই। কোন আহজারির বেদনার সংজ্ঞা আমার সমীকরণে নাই। ধর্ষণ প্রতিরোধে আপনি বাবা/মা'য়ের সচেতনতাই যথেষ্ট।।


লেখক
শিব্বির আহমেদ রানা
বাঁশখালী, চট্টগ্রাম