বিএনপি কি খালেদাকে হত্যা করতে চাচ্ছে?
বিএনপি কি খালেদাকে হত্যা করতে চাচ্ছে?

বিএনপি কি খালেদাকে হত্যা করতে চাচ্ছে?
খালেদা জিয়া

সেবা ডেস্ক: বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে সরিয়ে দিয়ে হত্যা করার চক্রান্তে লিপ্ত হয়েছে দলটি। গোপন খবর পাওয়া গেছে, কারাগারে খালেদা জিয়ার সাথে দেখা করতে বিএনপির মহিলা দলের সদস্যরা বিভিন্ন ধরনের খাবার-ফলমূল নিয়ে যায়। যা পরীক্ষা করে অতিরিক্ত ফরমালিনের সন্ধান পাওয়া যায়। খালেদা জিয়াকে হত্যার উদ্দেশ্যে এ খাবার এসেছিল বলেই বিশ্বস্ত সূত্র নিশ্চিত করেছে।

১১ জুন জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সদস্যরা এ খাবার নিয়ে যায়। এতে অতিরিক্ত ফরমালিনের উপস্থিতি পাওয়া গেলে কারা কর্তৃপক্ষ তা প্রত্যাখ্যান করতে বাধ্য হয়।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, খোদ তারেক রহমান নিজের মা খালেদা জিয়াকে হত্যার চক্রান্তে লিপ্ত রয়েছেন। সিঙ্গাপুরে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সাথে গোপন বৈঠকে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য শর্ট-কাট পরামর্শ চেয়েছেন তারেক রহমান। বৈঠকে ক্ষমতায় যেতে হলে তারেক রহমানকে নিজ মা খালেদা জিয়াকে হত্যা করার কুপরামর্শ দেন কিম জং উন।

সূত্র বলছে, কিম জং উন মনে করেন খালেদা জিয়া এখন অথর্ব হয়ে গেছেন। তাই খালেদা জিয়াকে বাঁচিয়ে রাখলে মানুষের মধ্যে আবেগ সৃষ্টি হবে না। তাই ক্ষমতায় যেতে হলে খালেদা জিয়ার মৃত্যু হওয়াটা জরুরী বলে মনে করেন তিনি। ঠিক যেভাবে নিজের আপন ভাইকে হত্যা করে দেশ আর ক্ষমতায় অনড় রয়েছেন কিম। একইভাবে খালেদা জিয়াকে হত্যার পরামর্শ ছিল কিমের কন্ঠে।

সূত্রে আরো জানা যায়, মাকে হত্যা করার পরামর্শের কথা শুনে তারেক বিমর্ষ হয়ে পড়েন। কান্নাকাটি শুরু করেন। বৈঠকে একটি আবেগঘন পরিবেশ তৈরি হয়। তারেকের ন্যাকামিতে বিরক্ত হয়ে কান্না থামানোর জন্য কড়া ঝাড়ি দেন কিম জং। পরবর্তীতে দুইহাত দিয়ে চোখের অশ্রু মুছে ফেলেন তারেক রহমান। মনকে শক্ত করে বৈঠক শেষ করেই সাথে সাথে জাতীয়তাবাদি মহিলা দলের একাধিক নেত্রীর সাথে কথা বলেন এবং অতিরিক্ত ফরমালিনযুক্ত খাবার নিয়ে কারাগারে যেতে বলেন।

সূত্র বলছে, তারেকের সাথে যে সমস্ত নারী নেত্রীর গোপন সম্পর্ক ভালো তাদের ওপর নিজের মা বেগম খালেদা জিয়াকে হত্যার গুরুদায়িত্ব তুলে দিয়েছেন। ক্ষমতার জন্য তারেক রহমান সবকিছু করতে প্রস্তুত বলেও জানিয়েছে বিশ্বস্ত সূত্রটি।