SebaBanner

আজ*

হোম
টাকার বিনিময়ে একটি স্বার্থান্বেষী মহলের কাজ করছেন রাশেদ খাঁনরা

টাকার বিনিময়ে একটি মহলের কাজ করছেন রাশেদ খাঁনরা

সেবা ডেস্ক: প্রায় ২৭ লাখ টাকার বিনিময়ে কোটা-সংস্কার আন্দোলনকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য রাশেদ খাঁনসহ কয়েকজন নেতা একটি স্বার্থান্বেষী মহলের হয়ে কাজ করছে বলে স্বীকার করেছে কোটা আন্দোলন কমিটির সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক মশিউর রহমান।

আন্দোলনকে রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে বিশৃঙ্খলা ও নাশকতা সৃষ্টির জন্য রাশেদ খাঁনসহ অন্যান্য নেতারা অশুভ একটি মিশনে নেমেছেন বলেও দাবি করেন মশিউর রহমান।

গত মাসের ৭ জুন ফেসবুক লাইভে এসে রাশেদ খাঁনের এসব পরিকল্পনার কথা ফাঁস করে দেন মশিউর রহমান। পাশাপাশি আন্দোলনের নৈতিকতা ও গ্রহণযোগ্যতার প্রশ্ন তুলে নিজেকে প্রত্যাহার করারও ঘোষণা দেন মশিউর রহমান।

ফেসবুক লাইভে মশিউর বলেন, সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রী আশ্বাস দেওয়ার পর আন্দোলনকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য চক্রান্ত করা হচ্ছে।

কোটা আন্দোলনের কথিত নেতা রাশেদ খাঁনসহ একাধিক নেতা ২৭ লাখ টাকা খেয়ে আন্দোলনকে রাজনীতিকরণের চেষ্টা করছেন। আন্দোলনের নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্য আমার হাতে স্বয়ং রাশেদ খাঁন দুটো ককটেল তুলে দিয়ে ফাটানোর নির্দেশ দেন।

ব্যবহার না করলে ফেরত দেওয়ারও আদেশ দেন রাশেদ। সব মিলিয়ে আন্দোলনটি গ্রহণযোগত্য ও যৌক্তিকতা হারানোয় নিজেকে প্রত্যাহার করে নিচ্ছি।

গোপন সূত্রে জানা গেছে, কোটা আন্দোলনকে বৃহত্তর রাজনৈতিক আন্দোলনে পরিণত করে সরকারকে বেকায়দায় ফেলানোর জন্য লন্ডন থেকে টাকা ও নির্দেশনা পাঠিয়েছেন পলাতক বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি নেতা তারেক জিয়া।

কোটা আন্দোলনই যেন সরকার পতনের আন্দোলনের চূড়ান্ত রূপ ধারণ করে সেই নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে রাশেদ গংদের আদেশ দিয়েছেন তারেক রহমান। পাশাপাশি বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে বিদেশী রাষ্ট্রদের কাছে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নেতিবাচকভাবে তুলে ধরারও বার্তা পাঠিয়েছেন তারেক রহমান।

তারেক রহমানের মতে, দেশে লাগাতার বিশৃঙ্খলা লেগে থাকলে বিদেশী বন্ধুরা বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকার আওয়ামী লীগ সরকারকে কূটনৈতিকভাবে চাপে রাখবে এবং এই বিশৃঙ্খলার সুযোগ নিয়ে সরকারের সাথে লেনদেন করে খালেদা জিয়ার মুক্তি আদায় করা সহজ হবে।

এছাড়া আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে যেকোন উপায়ে দলকে বিজয়ী করা যাবে। তাই বড় বড় অর্জনের জন্য রাশেদ খাঁনদের দুহাতে টাকা বিলি করছেন তারেক রহমান। কারণ পান থেকে চুন খসলেই নেতা-কর্মীদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করেন তারেক রহমান।

এছাড়া বিএনপির একার পক্ষে আন্দোলন করে সরকার পতন করা সম্ভব না। এটি ভালভাবেই বুঝতে পারছেন তারেক রহমান। তাই উপায়হীন হয়েই কোটা আন্দোলনে রসদ যোগাচ্ছেন তারেক রহমান।


,