শুভ উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে দেলদুয়ারের প্রয়াগজানী ব্রিজ

শুভ উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে দেলদুয়ারের প্রয়াগজানী ব্রিজ
সেবা ডেস্ক: টাঙ্গাইল জেলার দেলদুয়ার বাসীর দীর্ঘদিনের প্রানের দাবি ছিল লৌহজং নদীর উপর প্রয়াগজানীতে একটি ব্রিজ নির্মাণের। অবশেষে দেলদুয়ার তথা ডুবাইল ইউনিয়নবাসীর সেই স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে। নির্মাণ হয়েছে প্রয়াগজানী ব্রিজও।

লৌহজং নদীটি দেলদুয়ারের পূর্বাঞ্চলকে উপজেলা সদর থেকে বিচ্ছিন্ন করে রেখেছে। দেলদুয়ারের ডুবাইল ইউনিয়ন, মির্জাপুর উপজেলার মহেড়া ও বাসাইল উপজেলার হাবলা ইউনিয়নসহ আশেপাশের গ্রামের জনসাধারণ সরাসরি দেলদুয়ার উপজেলা সদরের সাথে যোগাযোগ করতে পারছিল না । প্রায় ৫/৭ কিলোমিটার অতিরিক্ত পথ পাড়ি দিয়ে বাথুলী ও পাকুল্যা হয়ে দেলদুয়ারের সাথে যোগাযোগ করতে হতো। কিন্তু এই ব্রিজটি নির্মিত হওয়ায় সরাসরি দেলদুয়ারের সাথে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের নাটিয়াপাড়ার সংযোগ স্থাপিত হবে। ইতিমধ্যেই স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল বিভাগের অধীনে দেলদুয়ার নাটিয়াপাড়া প্রায় ৬ কিলোমিটার রাস্তার পাকা করনের কাজও শেষ পর্যায়ে।

এদিকে স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল বিভাগের অধীনে প্রয়াগজানীতে ব্রিজটি নির্মাণে অর্থায়ন করেছে বাংলাদেশ সরকার ও জাইকা। ব্রিজের দৈর্ঘ্য ৫৪ মিটার। ব্যয় ধরা হয়েছে ২ কোট ৬৮ লক্ষ ৫২ হাজার টাকা। নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৬ সালের ২৪ মে। ২০১৭ সালের ২৩ নভেম্বর নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও নানা প্রতিকূলতায় কিছুটা বিলম্ব হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। ব্রিজটি নির্মাণ করেছেন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ভোলার মেসার্স ইলি এন্টারপ্রাইজ।

এদিকে ব্রিজটি উদ্বোধন ও রাস্তার কাজ সমাপ্ত হলেই সরাসরি দেলদুয়ার নাটিয়াপাড়া সড়কে যানবাহন চলাচল শুরু হবে। দেলদুয়ার উপজেলা সদরের সাথে ডুবাইল ইউনিয়ন সহ পূর্বাঞ্চলবাসীর যোগাযোগের এক নতুন দ্বার উন্মোচিত হবে বলে আশাবাদী এলাকাবাসী।

সুবর্ণতলী গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য সফিউর রহমান বলেন, সরকার আমাদের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ করে এই ব্রিজটি নির্মাণ করে দিয়েছেন। এতে হাজার হাজার মানুষ উপকৃত হবেন। উপজেলা প্রকৌশলী মো. হাবিবুল্লাহ বলেন, ব্রিজের দু’পাশের এপ্রোচের মাটি ভরাটের কাজ শেষ হলেই ব্রিজটি উদ্বোধন করে সর্ব সাধারনের জন্য খুলে দেওয়া হবে।
⇘সংবাদদাতা: সেবা ডেস্ক

, , ,

0 comments

Comments Please

themeforestthemeforest

ছবি কথা বলে