বকশীগঞ্জে রেলপথ ও গ্যাস সংযোগ চাইলেন এমপি আবুল কালাম আজাদ


বকশীগঞ্জে রেলপথ ও গ্যাস সংযোগ চাইলেন এমপি আবুল কালাম আজাদ


সেবা ডেস্ক: জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলায় রেলপথ ও গ্যাস সংযোগ চাইলেন জামালপুর-১ (দেওয়ানগঞ্জ-বকশীগঞ্জ) আসনের পাঁচবারের নৌকা বিজয়ী সংসদ সদস্য, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী সভাপতি ও সাবেক তথ্য ও সাংস্কৃতিক মন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ।

গত ৬ মার্চ বুধবার সংসদ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সামনেই তিনি এই দাবী উত্থাপন করেন।

এ নিয়ে বকশীগঞ্জ সাধারন মানুষ তার এই যৌক্তিক দাবীকে স্বাগত জানিয়ে দ্রুত বাস্তবায়ন দাবী করেন।

বকশীগঞ্জ পৌর সভার বাসিন্দা আমিনুল ইসলাম জানান, আমাদের এমপি মহোদয় একজন প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব।  প্রধানমন্ত্রীর সামনেই বড় বড় মন্ত্রীর কাজ ও মান নিয়ে প্রশ্ন করেন।  তাকে দিয়েই বকশীগঞ্জে রেলপথ ও গ্যাস সংযোগ বাস্তবায়ন করা সম্ভব।

শুধু তাই নয় মন্ত্রীদের কার্যকলাপেরও সমালোচনা করেন এমপি আবুল কালাম আজাদ।

সময় অনুযায়ী বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন না হওয়া নিয়ে সংসদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী সভাপতি এমপি আবুল কালাম আজাদ।

বুধবার (৬ মার্চ) রাতে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের উপর আনিত ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে এভাবেই সমালোচনা করেন সাবেক মন্ত্রী।

এ সময় তার পাশে বসে থাকা সরকারি দলের সদস্য বারণ করলে তিনি বলেন, আমি সরকারি দলের এমপি বলে বলতে পারব না? আমি মরে গেলে বলবে কে?

তিনি বলেন, আমি পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি থাকায় আমি যখন বিভিন্ন মন্ত্রণালয়কে ডাকি যখন প্রশ্ন করি সঠিকভাবে উত্তর দিতে পারেন না। যখন বলি এটা করছেন, এক বছর আগে ৩০০ কোটি টাকা এক বছরের মধ্যে নিয়ে আসলেন ৫০০ কোটি টাকা। বলছেন আরো দুই বছর লাগবে । তার মানে তারা যখন প্রকল্পটা তৈরি করে তখনই ঠিকমত তৈরি করতে পারে না।

সংসদে সরকারের প্রশংসা করা এমপিদের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, এই সংসদে অনেক বক্তা আছেন, তুখোর বক্তা বলে যাচ্ছেন বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে।  এই, ওই সব হচ্ছে বড় বড় প্রকল্প।  প্রধানমন্ত্রী আপনি অনেক পরিশ্রম করেন, বঙ্গবন্ধুরমত সাহস আছে। আপনার বুদ্ধিমত্তা অনেক বেশি।  আপনি দেখতে পারেন কোথায় কি হচ্ছে। কিন্তু বাস্তবায়নের জন্য প্রত্যেকটা প্রজেক্ট সম্পর্কে আপনি জানেন না।  ৩০০ কোটি টাকার প্রকল্প তিন বছরের শেষ করা কথা থাকলেও, এক বছর যেতে না যেতেই এটা নিয়ে আসে ৫০০ কোটি লাগব।  সময় লাগবে আরো দুই বছর। এমন কোন প্রজেক্ট নাই যেগুলো সময়মত বাস্তবায়িত হয়।  সময়মত প্রজেক্ট বাস্তবায়ন করতে আপনার লাগবে দক্ষ জনবল।

সংসদ অধিবেশনে তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী বাংলাদেশের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য সরবরাহ করার আহ্বান জানান।


⇘সংবাদদাতা: সেবা ডেস্ক

,

0 মন্তব্য(গুলি)

Comments Please