হোম কোয়ারেন্টাইনে গাইবান্ধায় ২৮৪ জন

হোম কোয়ারেন্টাইনে গাইবান্ধায় ২৮৪ জন

গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি: করোনা ভাইরাসকে কেন্দ্র করে গাইবান্ধার বিভিন্ন স্থানে বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিদের উপর কড়া নজরদাড়ি রাখা হচ্ছে। আগত ২৮৪ জন ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এরমধ্যে ৯ জন বিদেশী, ১৭৫ জন প্রবাসী ও ১০০ জন দেশী। এদের মধ্যে ২ জন আক্রান্ত। এছাড়া ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকায় ৪৩ জনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এখন হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ২৩৯ জন।

বুধবার জেলা প্রশাসনের উদ্যাগে নোভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রনে জেলা কমিটির এক সভা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মো.আবদুল মতিন। সভায় জেলা কমিটির সদস্য বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সিভিল সার্জন ডাঃ এবিএম আবু হানিফ জানান,২৫ মার্চ  বুধবার সকাল ৯টা পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন স্থানে বিদেশ ফেরত ২৩৯ ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তারা যাতে নিয়মের বাইরে না চলে সেজন্য তাদের উপর কড়া নজরদাড়ি রাখা হচ্ছে। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবারের মধ্যে এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

তিনি বলেন, গতকাল মঙ্গলবার ঢাকা থেকে আইইডিসিআর এর ৪ সদস্যের একটি টিম গাইবান্ধায় পৌঁছে ওই টিমের সদস্যরা সদর উপজেলা ও সাদুল্যাপুর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে কোয়ারেন্টাইন রাখা বাড়ির সদস্যদের পরীক্ষা নিরীক্ষা করছেন।

এদিকে গাইবান্ধা সদর উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের একই পরিবারের ২ জন বাসিন্দা গত ১০ মার্চ আমেরিকা থেকে বাংলাদেশে আসেন । তারা সম্পর্কে বাবা-মা ও ছেলে। গত ১৫ মার্চ গাইবান্ধা সিভিল সার্জনের কার্যালয় থেকে তাদের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় আইইডিসিআরে পাঠানো হয়। পরে পরীক্ষার ফলাফলে জানানো হয় মা ও ছেলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। এরপর থেকে তারা গাইবান্ধা শহরে এক আত্মীয়ের বাসায় অবস্থান করছেন।


 -সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন


,