রৌমারীতে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগ

রৌমারীতে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগ


শফিকুল ইসলাম: ইউপি চেয়ারম্যান ও রেকর্ডভুক্ত ওয়ারিশগন পাল্টাপাল্টি পুকুর দখল করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

এনিয়ে ওয়ারিশগণ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেও যাদুরচর ইউপি চেয়ারম্যান সরবেশ আলী তার ক্ষমতার জোড়ে ওই পুকুরটি লিজ প্রদান করেন।

 কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়নে এ ঘটনাটি ঘটে।

অভিযোগ ও পরিবার সুত্রে জানা গেছে, যাদুরচর ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক দখলকৃত একটি পুকুর দীর্ঘদিন থেকে প্রতিবছর লিজ প্রদান করে আসছে। 

ইতোমধ্যে ওই পুকুরের ৫৬ শতক জমি ৬২ ও দিয়ারা রেকর্ড অনুযায়ী নুর জাহান বেগম, রহিমা খাতুন, রেজিয়া খাতুন ও রোকেয়া খাতুনের নাম অন্তর্ভুক্ত হয়। 

ফলে ওয়ারিশসুত্রে ওই পুকুরে গত সপ্তাহে আগে সাইনবোর্ড টাঙ্গানোসহ পোনা মাছ ছাড়ে। 

পরবর্তীতে গত ২৮ মার্চ যাদুরচর ইউপি চেয়ারম্যান সরবেশ আলী তার লোকজন দিয়ে সাইনবোর্ড তুলে নিয়ে যায়। পরদিন সকালের দিকে পুকুরের ওয়ারিশগণ আবারো নিজেদের দখলে নেয়। ইউনিয়ন পরিষদ ওই পুকুরটি যাতে লিজ প্রদান করতে না পারে সে জন্য গত ২৩ মার্চ   নুরজাহান বেগম বাদী হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি লিখিত আবেদন দেন। 

এর আগে গত ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ইং তারিখে পুকুর মালিকদাবী করে উপজেলা নির্কাহী অফিসার বরাবর অভিযোগ করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার অভিযোগের প্রেক্ষিতে সার্ভেয়ার উপজেলা ভূমি অফিসকে তদন্তের দায়িত্ব দিলে তিনি ৪ মার্চ ২০১৮ ইং তারিখে একটি প্রতিবেদন দাখিল করেন। যাহা ওয়ারিশগণের পক্ষেই রায় আসে। 

যাদুরচর ইউপি চেয়ারম্যান সরবেশ আলী বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ পুকুরটি দীর্ঘদিন যাবত সরকারি নিয়মে লিজ দেওয়া হচ্ছে। ক্রয় সূত্রে ওই জমির মালিক ইউনিয়ন পরিষদ। 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল ইমরান জানান, অভিযোগ পেয়েছি উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি)কে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তদন্ত প্রতিবেদন আসলে উভয়ের কাগজপত্র যাচাই করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
  



শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।

Dara Computer Laptops