দেশের ৬৬০ থানায় একযোগে ৭ই মার্চ উদ্যাপন করবে পুলিশ-আইজিপি

দেশের ৬৬০ থানায় একযোগে ৭ই মার্চ উদ্যাপন করবে পুলিশ-আইজিপি


সেবা ডেস্ক: সারাদেশের ৬৬০ টি থানা’য় একযোগে ও এক সময়ে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদ্যাপন করবে বাংলাদেশ পুলিশ। সেখানে স্মরণ করা হবে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। আলোচনাসভা হবে, থাকবে প্রীতিভোজ ও মিষ্টি বিতরণ। গতকাল শুক্রবার সকালে রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ লাইনস অডিটোরিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন পুলিশ প্রধান (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ।

আইজিপি বলেন, গত মাসের ২৬ তারিখে বাংলাদেশ এলডিসি থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে জাতিসংঘের চূড়ান্ত সুপারিশ প্রাপ্তি ও ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণের দিনটিতে দেশব্যাপী আনন্দ উদ্যাপন করবে পুলিশ। দিনটি দেশের ৬৬০টি থানায় বিকাল ৩টায় একযোগে উদ্যাপন করা হবে। অনুষ্ঠানে পুলিশ সদস্য ছাড়াও স্থানীয় জনপ্রশাসনসহ নেতৃবৃন্দ থাকবেন। পুলিশ প্রধান সবাইকে হাত ধুয়ে, মাস্ক পরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের অনুরোধ জানান।

২০১৭ সালের ৩০ অক্টোবর ইউনেস্কো ৭ মার্চের ভাষণকে ‘ডকুমেন্টারি হেরিটেজ’ (বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য) হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। বাংলাদেশ পুলিশ প্রথমবারের মতো এই দিনটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্যাপন করবে।

বাংলাদেশের মানুষ বিস্মৃতিপ্রবণ উল্লেখ করে বেনজীর আহমেদ বলেন, এক সময় মানুষ ভুলেই যাবে, দেশে দারিদ্র্য ছিল। আর এখন দারিদ্র্য জাদুঘরে যাওয়ার উপক্রম। ২০০৮ সালের পর থেকে বাংলাদেশের উন্নয়নে আমূল পরিবর্তন এসেছে। আমাদের এ উদ্যাপনে দেশবাসীকে শামিল হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি স্বল্পোন্নত দেশের (এলডিসি) তালিকা থেকে বের হয়ে যাওয়ার সুপারিশপ্রাপ্ত হয় বাংলাদেশ। জাতিসংঘের কমিটি ফর ডেভেলপমেন্ট পলিসি (সিডিপি) এ সুপারিশ করেছে। তবে বাংলাদেশকে এলডিসি থেকে বের হতে ২০২৬ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।   



শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

,

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।