ধুনটে সরকারি রাস্তায় বাড়ি নির্মাণের অভিযোগ

ধুনটে সরকারি রাস্তায় বাড়ি নির্মাণের অভিযোগ



রফিকুল আলম,ধুনট (বগুড়া): বগুড়ার ধুনট উপজেলার ঘুগড়াপাড়া গ্রামে শত বছরের পুরানো সরকারি রাস্তা বেদখল করে বসতবাড়ি নির্মাণ করেছে স্থানীয় এক বাসিন্দা। এতে করে চরম দূর্ভোগে পড়েছেন কমপক্ষে ১৫ হাজার পরিবারের মানুষ। এ ব্যাপারে এলাকাবাসী স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেও কোন প্রতিকার পায়নি বলে অভিযোগ উঠেছে।

সরেজমিন দেখা গেছে, উপজেলার ঘুগড়াপাড়া গ্রামের রোমজান আলীর ছেলে মোস্তফা প্রামানিকের বাড়ির পাশ দিয়ে সরকারি রাস্তা রয়েছে। ওই রাস্তাটি প্রায় ২৮ ফুট প্রস্থ্য। ওই রাস্তা দিয়ে এলাকাবাসি ধুনট শহর, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাট-বাজারে আসা-যাওয়া করতো। এছাড়াও এলাকার কৃষকেরা সরকারি রাস্তাটি ব্যবহার করে জমি থেকে সহজে ফসলাদি পরিবহন করতে পারতেন। এ অবস্থায় মোস্তফা প্রামানিক ২০১৭ সালে রাস্তাটি দখল নিয়ে বাড়ি নির্মান করেছে।

অবৈধভাবে দখলের কারণে রাস্তাটি দিয়ে সব রকম যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এমনি কি বর্তমানে রাস্তাটি দিয়ে পায়ে হেঁটে চলাচল করাও দুষ্কর হয়ে পড়েছে। তারা দ্রুত অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করে সড়কটি উন্মুক্ত করতে ২০১৭ সালের ২৪ এপ্রিল স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, ওসি, এসিল্যান্ড ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট লিখিত অভিযোগ দেয়। গত ২০১৮ সালের ১২মার্চ উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় রাস্তাটি দখলমুক্ত করার সিদ্ধান্ত হয়। পরবর্তিতে করোনা দূর্যোগের কারণে প্রশাসনের পক্ষে উচ্ছেদ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি। এ অবস্থায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ওসি বদলী হয়ে যান।  
 
এ বিষয়ে বগুড়া বার সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আইনজীবি মোজাম্মেল হক বলেন, স্থানীয়ভাবে উদ্যেগ নিয়ে এ সমস্যার সমাধান হয়নি। উপরন্তু দখলকারী ব্যক্তি দখলকৃত রাস্তার জায়গা কোনক্রমেই ছাড়বে না বলে জানিয়ে দিয়েছে। প্রায় ২৮ মিটার চওড়া রাস্তাটি দিয়ে সব রকম যানবাহন চলাচল একেবারে বন্ধ হয়ে পড়েছে। ফলে ঘুগড়াপাড়া, মাদারভিটা ও আড়কাটিয়া গ্রামের মানুষ অবরুদ্ধ অবস্থায় দূর্বিষহ জীবনযাপন করছে।  

অবৈধ দখলদার মোস্তফা প্রামানিক বলেন, আমি সরকারি রাস্তা দখল নিয়ে ঘর উত্তোলন করিনি। তারপরও জায়গা পরিমাপ করে যদি সরকারি রাস্তার ভেতর বাড়িঘর পড়ে থাকে তাহলে দখল ছেড়ে দিব।

ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সঞ্জয় কুমার মোহন্ত বলেন, আমি এই কর্মস্থলে যোগদানের পর এ বিষয়টি আমাকে জানানো হয়নি। নতুন করে খোঁজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।