উল্লাপাড়ায় কৃষক লীগ নেতার অবৈধ বালু উত্তোলন কার্যক্রম বন্ধ

উল্লাপাড়ায় কৃষক লীগ নেতার অবৈধ বালু উত্তোলন কার্যক্রম বন্ধ


উল্লাপাড়া প্রতিনিধি: মঙ্গলবার উল্লাপাড়ায় করতোয়া নদীতে কৃষক লীগ নেতা ও সাবেক ইউপি সদস্যের অবৈধ বালু উত্তোলন কার্যক্রম বন্ধ করে দিল ভ্রাম্যমান আদালত। 

উল্লাপাড়ার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রে মোহাম্মদ নাহিদ হাসান খান ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। 

উপজেলার চর তারাবাড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা ও সলপ ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি এবং সাবেক ইউপি সদস্য গোলাম কিবরিয়া আলম দীর্ঘদিন ধরে চর তারাবাড়িয়া গ্রামের পাশে করতোয়া নদীতে বেকো মেশিন দিয়ে বালু এবং মাটি উত্তোলন করে তা অন্যত্র ট্রাকযোগে বিক্রি করে আসছিলেন। 

এ বিষয়ে গত ২৯ মে শনিবার সেবা হট নিউজে “উল্লাপাড়ায় বালু খেকো কৃষকলীগ নেতা চেয়ারম্যান প্রার্থী“ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়ার পর এলাকার লোকজন উপজেলা প্রশাসনের কাছে অভিযোগ করলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ নাহিদ হাসান খান মঙ্গলবার ঘটনাস্থলে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। এসময় বালু উত্তোলন কাজে ব্যবহৃত বেকো মেশিনের ব্যাটারি ও টুলবক্স জব্দ করা হয়। 

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার খবর পেয়ে কৃষক লীগ নেতা আলম পালিয়ে যান। 

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক সহকারী কমিশনার (ভূমি)  জানান, উক্ত গোলাম কিবরিয়া আলম দীর্ঘদিন ধরে প্রভাব খাটিয়ে অবৈধভাবে করতোয়া নদী থেকে বালু এবং মাটি উত্তোলন করে বিক্রি করে আসছিলেন। এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে তিনি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালন করে বালু ও মাটি উত্তোলন বন্ধ করে দিয়েছেন। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় আলমকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। সহকারী কমিশনার আরো জানান, ভবিষ্যতে আলম যাতে অবৈধ এই কার্যক্রম আর চালাতে না পারেন সে ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 
 


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।