“কৃষি যান্ত্রিকীকরণে নেওয়া হয়েছে ৩ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প”

“কৃষি যান্ত্রিকীকরণে নেওয়া হয়েছে ৩ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প”



সেবা ডেস্ক: বাংলাদেশ সরকারের কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, দেশের কৃষিকে আধুনিক এবং বাণিজ্যিকীকরণ প্রয়োজন। এজন্য কৃষিকে যান্ত্রিকীকরণ করতে শেখ হাসিনার সরকার ৩ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প নিয়েছে।

আজ শনিবার রাজধানীর ফার্মগেটে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল অডিটোরিয়ামে ‘ভরসার নতুন জানালা’ শীর্ষক কৃষি উদ্যোক্তা সম্মেলন-২০২১ এ তিনি এসব কথা বলেন।

কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক বলেন, দেশের অর্থনীতি সচল রাখতে পণ্য রফতানি করা হচ্ছে। ফলে ফসল যতই ভালো হোক, ১৭ কোটি মানুষকে খাওয়ানোর পর রফতানি করা কষ্টসাধ্য। 

সে জন্যই হয়তো একটু দাম বেড়েছে। তবে এখন আর মানুষ খাবারের কষ্ট করে না।

কৃষি মন্ত্রী বলেন, আমাদের বিজ্ঞানীরা দীর্ঘ গবেষণার পর বিনা ধানের নতুন জাত উদ্ভাবন করেছেন। এই ধানের ফলন যেমন বেশি, তেমনি দুর্যোগ সহিষ্ণু। 

আর অল্প কিছু গবেষণার পরই এটাকে কৃষকের জন্য উন্মুক্ত করা হবে। এখন নতুন ধান কবে ঘরে উঠবে, সেজন্য আমাদের আলাদা করে হেমন্তের জন্য অপেক্ষা করতে হয় না।

তিনি জানান, কৃষি রফতানিকে অতীতের তুলনায় আরো সহজীকরণ ও কৃষি উদ্যোক্তাদের জন্য কৃষি মন্ত্রণালয়ে আলাদা একটি সেল গঠন করা হবে। 

সেই সঙ্গে আগামী ৪ থেকে ৫ বছরের মধ্যে দেশে সারাবছর আম পাওয়া যাবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন- ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক (ইউসিবি) লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ শওকত জামিল, বাংলাদেশ ব্যাংকের কৃষি ঋণ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক মো. আব্দুল হাকিম, বিসেফ ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক রেজাউল করিম সিদ্দিক। 

সভাপতিত্ব করেন সাবেক কৃষি সচিব ও সম্মেলনের সমন্বয়ক আনোয়ার ফারুক। 


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

,

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।