দেশের বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নে ৫০ কোটি ডলার দেবে বিশ্ব ব্যাংক

দেশের বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নে ৫০ কোটি ডলার দেবে বিশ্ব ব্যাংক



সেবা ডেস্ক: বিদ্যুতে’র স’রবরাহ ব্যবস্থা’র আধুনিকায়নে বাংলাদেশকে ৫০ কোটি মার্কিন ডলা’র ঋণ দেওয়া’র সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ব ব্যাংক। বর্তমান বিনিময় হা’র (প্রতি ডলা’র ৮৬ টাকা) অনুযায়ী এ’র পরিমাণ চা’র হাজা’র ৩০০ কোটি টাকা।

আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহযোগী সংস্থাটি মঙ্গলবা’র ঋণ অনুমোদন দেয়।

বুধবা’র সংস্থাটি’র ঢাকা কার্যালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, নতুন ঋণ বাংলাদেশে’র বিদুৎ সঞ্চালন ব্যবস্থা’র আধুনিকায়ন বিস্তৃতক’রণ এবং বিদ্যুৎ ব্যবস্থা’র টেকসই পরিবর্তনে সহায়তা ক’রবে।

বিদ্যুৎ ব্যবস্থা’র আধুনিকায়নে’র কর্মসূচি’র আওতায় ঢাকা ময়মনসিংহ বিভাগে’র চা’র কোটি মানুষে’র কাছে উন্নত বিদ্যুৎ সেবা পৌঁছানো হবে।

এ’র মাধ্যমে ৩১ হাজা’র কিলোমিটা’র বিদ্যুৎ স’রবরাহ লাইন ১৫৭ উপকেন্দ্রে’র আপগ্রেড নির্মাণ করা হবে।

একই সঙ্গে ২৫টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি’র জন্য জলবায়ু সহায়ক বিদ্যুৎ স’রবরাহ ব্যবস্থা তৈরিতে উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

নতুন ঋণ অনুমোদনে’র প্রতিক্রিয়ায় বাংলাদেশে বিশ্ব ব্যাংকে’র ভা’রপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডিরেক্ট’র ড্যানড্যান চেন বলেন, “গত এক দশকে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উৎপাদন চা’রগুণে’র বেশি বাড়িয়েছে। আ’র প্রায় ৯৯ ভাগে’র বেশি মানুষে’র কাছে বিদ্যুৎ সংযোগ নিয়ে গেছে। কিন্তু বিদ্যুৎ উৎপাদনে’র উল্লেখযোগ্য গতি’র সঙ্গে তাল মিলিয়ে স’রবরাহ নেটওয়ার্ক গড়ে তুলতে পারেনি।

কর্মসূচি জলবায়ু সহনশীল স’রবরাহ নেটওয়ার্কে’র আধুনিকায়ন নিশ্চিত ক’রতে সহায়তা ক’রবে, যা নিরাপদ নির্ভ’রযোগ্য বৈদ্যুতিক ব্যবস্থা’র মেরুদণ্ড।

বিশ্ব ব্যাংকে’র আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা’র (আইডিএ) মাধ্যমে দেওয়া হবে ৩০ বছ’র মেয়াদি ঋণ। এ’র মধ্যে থাকবে পাঁচ বছরে’র রেয়াত কাল।

মোট অর্থে’র মধ্যে ১৫ লাখ ডলা’র ক্লিন টেকনোলজি ফান্ডে’র (সিটিএফ) আওতায় অনুদান হিসাবে দেওয়া হবে বলেও জানানো হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

কর্মসূচিসহ বাংলাদেশে’র বিদ্যুৎ জ্বালানি খাতে বিশ্ব ব্যাংকে’র ১০৮ কোটি ডলারে’র সহায়তা কার্যক্রম চলমান ‘রয়েছে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি। 


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

,

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।