মেলান্দহে গাছের সাথে শত্রুতা

মেলান্দহে গাছের সাথে শত্রুতা



: জামালপুরের মেলান্দহে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গাছপালা কেটে সাবাড় করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে ২৫ জানুয়ারি বারইপাড়া গ্রামে। 


জানা গেছে, ১০৭০ সালে মেলান্দহ বারইপাড়া মৌজার ৯ শতাংশ জমি বিক্রি করেন তার প্রতিবেশি মুনছব আলীর নিকট। যার সাবেক দাগ নম্বর ১৩৬। জমি রেজিস্ট্রির কিছুদিন পর জমির দাতা ও গ্রহিতা মারা যান। 


পরবর্তীতে দাতা আ: করিমের ছেলে আ: সালাম গংরা বিরোধীয় জমিটি প্রতিবেশি আ: রাজ্জাকের নিকট প্রায় ৪০ বছর যাবৎ বন্ধক রাখেন। এতেই শেষনয়, একই জমিতে আ: সালামের জেঠাতো ভাই মোকরম শেখকে বসতি বাড়ি করে দেন। এই ৯ শতাংশ জমির বিরোধটি ত্রি-ধারায় রূপ নেয়ায় এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া বিরাজের জের ধরে গাছপালা কেটে সাবাড় করে আ: সালাম গংরা। 


পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে গ্রাম্যভাবে কয়েক দফা দেন-দরবারও হয়। ওদিকে জমির দাতা আ: করিম এবং ক্রেতা মুনছব আলীর মৃত্যুর পর বিরোধীয় জমি ক্রয়-বিক্রয়ের বিষয়টি গোপনীয় থেকে যায়। 


এ ব্যাপারে জমির ক্রেতা মুনছব আলীর একমাত্র প্রতিবন্ধী ছেলে তোতা মিয়া (৪০) জানান- আমার বাবার কাছে জমি বিক্রির দলিলটি কিছুদিন আগে পেয়েছি। যার দরুণ আমরা দখলে ছিল না। 


আ: রাজ্জাকের অভিযোগ, আমার পাওনা টাকা দিলেইতো জমি ছেড়ে দিব। নিরপরাধ গাছপালা কাটার কি যুক্তি আছে? 


 মোকররম শেখ জানান-আমি ভূমিহীন থাকায়, আমার বাপ-দাদার আমল থেকেই আমাকে এই জমিতে বসতি করে দিয়েছেন। আ: সালাম গংরা জানান-জমি বিক্রির দলিল দেখাতে পারলে জমি ছেড়ে দিব। আমরা শান্তিপূর্ণ সমাধান চাই। 



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।