সরিষাবাড়িতে ফেসবুক লাইভে এসে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

সরিষাবাড়িতে ফেসবুক লাইভে এসে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা



: মোটরবাইক কিনে না দেওয়ায় বা-মা’র প্রতি অভিমান করে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের লাইভে এসে আত্মহত্যা করেছেন হানিফ পালোয়ান (১৬) নামে এক এসএসসি পরীক্ষার্থী। লাইভে আসার আগে তিনি তার প্রোফাইলে “আমার মরার জন্য কেও দায়ে না আমার একটা bike কুপ কিন্তে এইসসা হইসিল কিন্তু আমার মা বাবা আমারে bike কি না দেই নাই তাই আমি নিজ এইসাই এই দুনিয়ায় থাকে চলে জাইতাসি বেচে তাক লে bike নিয়া দেখা হবে good by bd” লিখে এক স্ট্যাটাস দেন। তারপর তিনি লাইভে এসে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেন।


জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলা পরিষদের আবাসিক কলোনিতে বুধবার (২০ জুলাই) রাতে এ ঘটনা ঘটে।


নিহত কিশোর হানিফ পালোয়ান উপজেলার সাতপোয়া ইউনিয়নের চর সরিষাবাড়ী গ্রামের ট্রাক চালক সাহের পালোয়ানের ছেলে। তিনি সরিষাবাড়ী রিয়াজ উদ্দিন তালুকদার উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবার এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিলেন।

 

পারিবারিক সূত্র জানায়, হানিফ পালোয়ানের মোটরসাইকেলের প্রতি ছিল দুনির্বার আগ্রহ। কিছুদিন আগে তাকে একটি পুরাতন মোটরসাইকেল কিনেও দিয়েছিল তার পরিবার। কিন্তু তার ইচ্ছা ছিলো নতুন মোটরসাইকেল কেনার। বাবা-মা টাকা জোগাড়ের চেষ্টায় ছিলেন, কিন্তু মোটরসাইকেল কিনে দিতে দেরি হওয়ায় বুধবার রাত ১০টায় দিকে তিনি ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে উপজেলা পরিষদের আবাসিক কলোনির ভাড়া বাসায় ফেসবুক লাইভে গিয়ে ফাঁসিতে ঝুলতে থাকেন। পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।


উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. দেবাশীষ রাজবংশী বলেন, ওই কিশোরকে রাত সাড়ে ১০টায় দিকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনে তার পরিবার। কিন্তু হাসপাতালে আনার আগেই তিনি মারা যান।

 

সরিষাবাড়ী থানার পুলিশ উপপরিদর্শক মুর্শেদ আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ বিষয়ে পরিবারের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তাই ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।