কাজিপুরে পূর্বশত্রুতার বলি শতাধিক চারাগাছ

 : সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার চরভানুডাঙ্গা আদর্শ গুচ্ছগ্রামে পূর্বশত্রুতার কারণে এক কৃষকের লাগানো ১৪ শতক জমির বেগুন ও মরিচের চারাগাছ উপড়ে ফেলা হয়েছে। 

কাজিপুরে পূর্বশত্রুতার বলি শতাধিক চারাগাছ



 গত বুধবার রাতের আঁধারে এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। এতে করে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক একই গ্রামের মৃত মেহের শেখের পুত্র ছলিম শেখ(৫১) বৃহস্পতিবার প্রতিবেশী মোজাম্মেলসহ ৮ জনের নাম উল্লেখ করে কাজিপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

 থানায় দেয়া অভিযোগ ও স্থানীয়সূত্রে জানা গেছে, প্রতিবেশী মোজাম্মেল হকের সাথে ছলিম শেখের দীর্ঘদিন যাবৎ দ্বন্দ্ব চলছে। সুযোগ পেলেই ছলিম ও তার পরিবারকে মোজাম্মেল ও তার লোকজন নানাভাবে অত্যাচার নির্যালতন করে। নানা সময়ে তারা ছলিম শেখকে ওই বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতায়  মোজাম্মেল,তার স্ত্রী তারা ভানু, তাদের লোক শহিদুল, মজিবর, রহিম, হানিফ, জহুরুল, মান্নান ও শাহিদা মিলে ছলিম শেখের ১৪ শতক জমিতে লাগানো বেগুনের চারাগাছ ও মরিচের চারাগাছ উপড়ে জমিতেই ফেলে রাখে। এতে করে ছলিম শেখের অর্ধলক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে। 

 শুক্রবার সকালে ঘটনাস্থলে গিয়ে সরেজমিন  জানা গেছে, জমিতে লাগানো মরিচের ও বেগুনের ফলন্ত চারাগাছগুলো টেনে তুলে পাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে ফেল রাখা হয়েছে।


এদিকে স্থানীয়রা জানান মোজাম্মেল হক নেশাগ্রস্ত । আর হানিফ একাধিক বিয়ে করে বউ দিয়ে অনৈতিক কাজ করায়। এসব কাজে ছলিম শেখ প্রতিবাদ করায় তার সাথে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি। 

 ছলিম ও মোজাম্মেলের প্রতিবেশী গৃহবধু রঞ্জনা খাতুন বলেন, মাওলা বক্সের ছেলে হানিফ, এযাবৎ ৬-৭টি বিয়ে করছে। প্রতিদিন নতুন নতুন মহিলা নিয়ে তার ঘরে অবৈধ কার্জকলাপ করে। কিছু বললে আমাদেরও মারতে আসে। 


 নিজেকের নির্দোষ দাবী করে মোজ্জাম্মেল হক জানান, এসব আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যে রটানো হচ্ছে। আমরা কেউই চারাগাছের ক্ষতি করি নাই। 

 অভিযোগ পাবার কথা স্বীকার করে কাজিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল কুমার দত্ত জানান, উভয়পক্ষেরই অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনাস্থলে গিয়ে খোঁজ খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।