প্রধান শিক্ষককে মারপিটকারী সভাপতি পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার

 : সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার টিকরাভিটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মজিদকে মারপিটের ঘটনায় পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন ওই বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি। তার নাম আব্দুস সালাম (৫০)। 

প্রধান শিক্ষককে মারপিটকারী সভাপতি পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার



 তিনি টিকরাভিটা গ্রামের মৃত জসমত আলীর পুত্র। কাজিপুর থানা পুলিশ রবিবার রাতে টিকরাভিটা গ্রামে অভিযান চালিয়ে বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি আব্দুস সালামকে গ্রেপ্তার করে।  


স্থানীয়সূত্রে  জানা গেছে, টিকারভিটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির এক শিক্ষার্ক্ষীকে বেত দিয়ে আঘাত করেন শিক্ষিকা শামসুন্নাহার। তিনি বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি আব্দুস সালামের মেয়ে।  


আহত শিক্ষার্থীর অভিভাবকের মৌখিক অভিযোগের বিষয়ে প্রধান শিক্ষক আব্দুল মজিদ গত বৃহস্পতিবার শিক্ষিকা শাসসুন্নাহারের নিকট জানতে চান। ওই শিক্ষিকা কোন উত্তর না দিয়ে বিষয়টি তার পিতা আব্দুস সালামকে জানালে তিনি তার দুই পুত্র রবিউল ইসলাম ও বাবলু মিয়াকে নিয়ে ওই বিদ্যালয়ে প্রবেশ করেন। এক পর্যায়ে তারা প্রধান শিক্ষককে এলোপাথারি মারপিট করেন। 


এসময় প্রধান শিক্ষকের পরনের জামা কাপড় ছিড়ে যায়। পরে তার ডাকচিৎকারে পাশের বাড়ির মানুষজন এসে তাকে উদ্ধার করে। এই ঘটনায় পরদিন প্রধান বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি শিক্ষক সালাম ও তার দুই পুত্রকে আসামী করে কাজিপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। 


প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালাম বলেন, ওই সাবেক পরিচালক কোনকিছু না শুনে সরাসরি বিদ্যালয়ে ঢুকেই আমার উপর চড়াও হয়েছেন। এই ঘটনার আমি সুষ্ঠু বিচার চাই। 


 এদিকে গ্রেপ্তারের পূর্বে মুঠোফোনে অভিযুক্ত আব্দুস সালাম জানান, ওই প্রধান শিক্ষক আমার এবং আমার ছেলেদের নামে মিথ্যা রটনা করছে। আমরা তাকে মারিনি। পরক্ষণেই আবার বলেন বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে মিমাংসার চেষ্টা চলছে। 


 কাজিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল কুমার দত্ত জানান, গ্রেপ্তার আসামী সালামকে সোমবার দুপুরে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। 



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।