নন্দীগ্রামে ইউএনও অফিস চত্বর থেকে মোটরসাইকেল চুরি

 : বগুড়ার নন্দীগ্রামে ইউএনও অফিস চত্বর থেকে এক সহকারী অধ্যাপকের মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা ঘটেছে। উপজেলা প্রশাসন ও পৌরসভার সিসিটিভি ফুটেজে দুই চোরকে মোটরসাইকেল নিয়ে যেতে দেখা যায়। চেহারা দেখা গেলেও তাদের শনাক্ত করা যায়নি। 

নন্দীগ্রামে ইউএনও অফিস চত্বর থেকে মোটরসাইকেল চুরি



 আজ রোববার বেলা পৌনে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে রাতে নন্দীগ্রাম থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। 


জানা গেছে, পৌরসভার কলেজপাড়া মহল্যার আব্দুর রহমানের ছেলে হাটকড়ই ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক হারেজ আলী ঘটনার দিন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তার ব্যবহৃত নীল-সাদা রংয়ের মোটরসাইকেল- হরনেট ১৬০সিসি (বগুড়া-ল-১২-৭৪৩১) নিয়ে সরকারি কাজের জন্য উপজেলা পরিষদে যান। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের (ইউএনও) অফিসের নিচে পূর্বপাশে নিম গাছের ধারে ফাঁকা জায়গায় মোটরসাইকেল রেখেছিলেন। কাজ শেষে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন তার মোটরসাইকেলটি নেই। 

উপজেলা প্রশাসনের সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, দুই যুবক বেলা সোয়া ১১টার দিকে ইউএনও অফিসের নিচে রাখা মোটরসাইকেলের আশপাশে ঘুরাঘুরি করছিল। উপজেলা পরিষদ ভবনে এক চোর প্রবেশ করে সহকারী অধ্যাপককে নজরদারি করছিল। ৩০ মিনিট পরই সুযোগ বুঝে দুই চোর কৌশলে তালা খুলে মোটরসাইকেলটি চুরি করে বীরদর্পে উপজেলা রোড বাসস্ট্যান্ড হয়ে বগুড়ার পথে চলে যায়। পৌরসভার একাধিক সিসিটিভি ফুটেজে দুই চোরকে মোটরসাইকেল নিয়ে যেতে দেখা যায়। তাদের চেহারা পরিস্কার দেখা গেছে। তবে শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। 

এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিফা নুসরাত বলেন, অফিসের নিচ থেকে একটি মোটরসাইকেল চুরির বিষয় শুনেছি। 



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।