[৪০১] মাছ চুরি দেখে ফেলায় গলা কেটে হত্যা

🕧Published on:

 : নোয়াখালীল বেগমগঞ্জ উপজেলার রাজগঞ্জ ইউনিয়নের টঙ্গিরপাড় এলাকায় মাছ চুরি দেখে ফেলায় ব্যবসায়ী দুলাল চন্দ্র দাসকে (৫০) গলা কেটে হত্যা করে লাশ চেয়ারে বসিয়ে রেখে গেছে হত্যাকারীরা।

মাছ চুরি দেখে ফেলায় গলা কেটে হত্যা



এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত এক আসামিকে গ্রেফতার করে।  

আরও পড়ুন: >>  নোয়াখালীতে ব্যবসায়ীকে জবাই করে হত্যা

গ্রেফতারকৃত আবদুর রব ওরফে আবুল (৪০) উপজেলার রাজগঞ্জ ইউনিয়নের আলমপুর গ্রামের মৃত মালেকের ছেলে।  


রোববার (১১ জুন) বেলা সাড়ে ১১টার এক প্রেস নোটে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন নোয়াখালীর পুলিশ সুপার (এসপি) মো.শহীদুল ইসলাম। এর আগে, শুক্রবার রাত ২-৩ টার মধ্যে উপজেলার রাজগঞ্জ ইউনিয়নর টঙ্গির পাড় এলাকার চিত্ত বাবুর দিঘিতে এ ঘটনা ঘটে। পরে তাৎক্ষণিক পুলিশ এক আসামিকে গ্রেফতার করে


প্রেস নোটে বলা হয়েছে, রাজগঞ্জ ইউনিয়নের আলমপুর গ্রামের বাসিন্দা আবদুর রব ওরফে আবুল (৪০) ও বাদশা নামে এক যুবক ৪/৫ দিন আগে তাদের এলাকার একটি পুকুর থেকে রাতের বেলা মাছ চুরি করে নিয়ে যায়। বিষয়টি নিহত দুলাল দেখে ফেলে পুকুরের মালিককে জানায়। পুকুরের মালিক রব মিয়া এ নিয়ে আবুল ও বাদশাকে গালমন্দ করে। এ নিয়ে ভিকটিম ও তাদের মাঝে একটি বিরোধ দেখা দেয়। এ ঘটনার প্রতিশোধ নিতে আবুল হোসেন বাদশার সাথে পরামর্শ করে। পরিকল্পনা অনুসারে শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে তারা দুইজন দুলাল যেখানে মাছ পাহারা দেয় সেই প্রজেক্টে যায়। তখন দুলাল ঘুমন্ত অবস্থায় ছিল। ওই সময় তারা অতর্কিতভাবে দুলালের ওপর আক্রমণ চালায়। আবুল হোসেন দুলালের গলায় ক্ষুর দিয়ে পোচ দেয় এবং বাদশা দুলালকে এলোপাতাড়ি  কুপিয়ে জখম করে হত্যা করে।


এসপি আরও জানায়, পুলিশ হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত একটি ক্ষুর ও চাপাতি খাল থেকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বকুল রানী দাস বাদী হয়ে বেগমগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।  ওই মামলা আবুলকে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতে সোপর্দ করা হবে। পুলিশ অপর পলাতক আসামিকে গ্রেফতারে চেষ্টা চালাচ্ছে।   

 


শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।